শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
আমি এই মহেশপুরের আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান
মহাসীন আলী ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
১৫ মে, ২০১৮ ১৬:২৭:১৫
প্রিন্টঅ-অ+


আমি মহেশপুরে জামাত থেকে আসি নাই,বিএনপি থেকে থেকে আসি নাই আমি রাজাকারের সন্তান নই, এই মহেশপুরের আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান ! সোমবার মহেশপুর আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী সাবেক এমপি পারভিন তালুকদার মায়া মহেশপুরের অডিটরিয়াম মাঠে আওয়ামীলীগের কর্মী সমাবেশে  ও আনন্দ র‌্যালীতে প্রধান বক্তা হিসাবে এই কথা বলেন ।  তিনি পুর্বে অনুষ্ঠিত একটি আওয়ামীলীগের সমাবেশে তাকে নিয়ে  স্থানীয় সংসদ সদস্যর বক্তব্যের সুত্র ধরে আরো বলেন আমি এই মহেশপুরের মেয়ে মায়া ! আমার বাবা সেই সময়ের ইউনিয়ন বোর্ডের সভাপতি। আমার বড়ভাই মুক্তিযোদ্ধা জাফর সাদেক। আমার স্বামী কেন্দীয় ছাত্রলীগ এর সদস্য ছিলেন এবং সিদ্দেশ্বরী কলেজের ছাত্রলীগের পক্ষের ভিপি ছিলেন,আমি জিন্নানগর স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেছি। আমার জন্ম আওয়ামীলীগ পরিবারে এবং আমি ও আমার পরিবার এখনো আওয়ামীলীগ এর সাথে সক্রীয় ভাবে জড়ীত। আমি অন্য কোনো দলের থেকে আপনাদের কাছে আসি নাই।  

কর্মী সমাবেশে তিনি বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনার এই সরকারের আমলে সমগ্র বাংলাদেশ উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে। শুধুমাত্র কোটচাঁদপুর মহেশপুরের জনগনই এই উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত ! তাদের সান্তনা দেওয়ার মত কেউ নেই। তাই আজ আপনারা আমাকে কাছে ডেকে নিয়েছেন মায়া তালুকদারের পক্ষে গনজোয়ার সৃষ্টি করেছেন ! আপনাদের এই ভালোবাসা আমাকে অনেক দুর এগিয়ে নিয়ে যাবে! আপনাদের এই ভালোবাসা আমি কখনও ভুলবো না ! গুটি গুটি পায়ে আজ আপনারা আমাকে পরিচিত করেছেন। সকলের অন্তরে মায়া তালুকদারের নাম লিখে দিতে পেরেছেন সেই জন্য আমি কৃতজ্ঞ। আল্লাহ যদি সহায় হন আর আপনারা এই ভাবে যদি আমার পাসে থাকেন আমি আপনাদের কথা দিয়ে যাচ্ছি ৫বছরের মধ্যে এই কোটচাঁদপুর মহেশপুরকে আমি বাংলাদেশের মধ্যে উন্নয়নের রোল মডেল হিসাবে গড়ে তুলবো।

তিনি কর্মীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, বেকার সমস্যা সমাধানের জন্য আমি এই প্রত্যন্ত গ্রামে একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি করেছিলাম সেখানে কাজ করে এখন হাজার হাজার মানুষের দু বেলা অন্ন জুটছে। আমি আরো কলকারখানা স্থাপন করতে চেয়েছিলাম কিন্তু আমার বিরোধী পক্ষ আমাকে কোথাও জমি কিনতে দেয়নি। তারা এই এলাকার উন্নয়নের পথে বাধা হয়ে দাড়িয়েছিলো কিন্তু আমি কথা দিচ্ছি যদি আপনাদের সহযোগিতা পাসে পায় এই কোটচাঁদপুর মহেশপুরের কোনো একটি ঘরেও একজনও বেকার থাকবেনা। সকলের কর্মসংস্থান এর সুযোগ এই মাটিতেই আমি করে দিব ।

তিনি তার বক্তব্যে বলেন আজ আর আমি একা নাই মায়া তালুকদার আজ কোটচাঁদপুর মহেশপুরের প্রত্যেক ঘরে ঘরে।আজ আমার সাহস হয়েছে আপনাদের দেখে। আপনারা আমরা সবাই মিলে নৌকার বিজয় এনে  জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার মাধ্যমে দেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হবে। এ জন্য পুরুষের পাসাপাসি নতুন ভোটার ও নারীদের গুরুত্ব দিয়ে কোটচাঁদপুর মহেশপুরের প্রতিটি মানুষ অন্ন পাবে, আশ্রয় পাবে, উন্নত জীবন পাবে এবং আওয়ামী লীগের প্রত্যেকটি নেতাকর্মীর দায়িত্ব নিয়ে জাতির পিতার সে স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করাই হবে আমার মুল কর্ম বলেও উল্লেখ করেন এই সাবেক এমপি । এই এলাকার দু:খী মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হবার আগ পর্যন্ত তার সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি। 

সকালে মহেশপুর থানা,পৌর সহ প্রতিটি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড, গ্রাম থেকে মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা মহেশপুর অডিটরিয়ামে মাঠে এসে উপস্থিত হন। বিভিন্ন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকরা মিছিলের নেতৃত্ব দেন।  বিশাল মাঠে নেতাকর্মীদের ভিড়ে কানায় কানায় পুর্ণ হয়ে যায়।

 মহেশপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মইজুদ্দিন হামিদ এর সভাপতি¦তে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি প্রীটি গ্রæপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী তালুকদার ফারুক এই কর্মীসভার উদ্বোধন করেন।

 



    আমার বার্তা/১৫ মে ২০১৮/জাকিয়া

 


আরো পড়ুন