শিরোনাম :

  • ১১০ উপজেলা-পৌরসভা-ইউপিতে ভোট শুরু ধর্মঘটে উবার চালকরা ১১ নারী কর্মকর্তাকে শাড়ি উপহার দিলেন অর্থমন্ত্রী চট্টগ্রাম-মদিনা সরাসরি ফ্লাইট ৩১ অক্টোবর পুলিশের ওপর হামলা : নব্য জেএমবির দুই সদস্য গ্রেফতার
পাবনায় টয়লেটে তিন বছরের শিশুর মরদেহ উদ্ধার
পাবনা প্রতিনিধি :
২৬ জুন, ২০১৯ ১১:৪২:৫৭
প্রিন্টঅ-অ+


পাবনার সাঁথিয়ায় টয়লেট থেকে তিন বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই হত্যায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ শিশুটির আপন চাচীকে আটক করেছে ।

হত্যার শিকার হওয়া শিশুটির নাম রবিউল ইসলাম। সে সাঁথিয়া উপজেলার করমজা মল্লিকপাড়া গ্রামের শামিম ফকিরের ছেলে। আটক চাচী কনা খাতুন (৩২) একই গ্রামের শাহীন হোসেনের স্ত্রী। রবিউলকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন কনা খাতুন।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, মঙ্গলবার সকাল থেকে রবিউল ইসলাম নিখোঁজ হয়। পরিবারেরর লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজির পর বিকেলে শামিমের ভাই শাহিনের টয়লেটে শিশুটির মরদেহ দেখতে পায়। স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওসি জাহাঙ্গীর আরো জানান, ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে শিশুটির চাচী কনা খাতুনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শিশুটিকে শ্বাসরোধে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন কনা।

পুলিশের ধারণা, পুর্ব বিরোধে এই হত্যা সংঘটিত হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। আজ বুধবার নিহত শিশুর মরদেহের ময়নাতদন্ত পাবনা জেনারেল হাসপাতালে সম্পন্ন হবে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পাবনার বেড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিল্লুর রহমান। তিনি জানান, জড়িত চাচী কনা খাতুন রবিউলকে হত্যার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। মামলা দায়েরের পর তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হবে।



আমার বার্তা/২৬ জুন ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন