শিরোনাম :

  • জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ২দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ আইসিসির সেরা হওয়ার দৌড়ে বাংলাদেশের নাসুম
কামরাঙ্গীরচর থানা আ.লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ৩০ জুলাই
এফ এইচ সবুজঃ
২৪ জুলাই, ২০২২ ২০:০৭:৫০
প্রিন্টঅ-অ+


চলতি বছরের ডিসেম্বরে শেষ হচ্ছে আওয়ামী লীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদ। তার আগে আগামী ৩০ জুলাই রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থানা আওয়ামী লীগ ও ৫৫, ৫৬, ৫৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে কামরাঙ্গীরচর থানা আ. লীগ তৃণমূল থেকে ঢেলে সাজাতে নড়েচড়ে বসেছেন দলটির নেতারা। ইতোমধ্যে ইউনিট সম্মেলন শেষ করে ঈদের আগে ইউনিট নেতাদের নিয়ে পরিচিতি সভা করেছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আ. লীগ। ৩০ জুলাই সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ক্ষণগণনা শুরু করেছে পদপ্রত্যাশী নেতা ও তাদের অনুসারীরা। নিজ নিজ নেতাদের পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন কর্মীরা, প্রচারণায় মুখরিত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। এ দৌড়ে পিছিয়ে নেই ওয়ার্ড ও স্থানীয় পর্যায়ের নেতারা। পদমর্যাদা বৃদ্ধি করতে নেতারা যে যার মতো তদবির করে যাচ্ছেন। শেষ লগ্নে এসে মহানগর নেতাদের দরজায় কড়া নাড়ছে কেউ কেউ। আবার কেউবা যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতাদের কাছে। কে হচ্ছেন কামরাঙ্গীরচর থানা আওয়ামী লীগের পরবর্তী সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক? তা নিয়ে নানামুখী জল্পনা-কল্পনা শুরু হলেও দলটির মহানগর সূত্র জানায়, যোগ্যতায় যারা এগিয়ে থাকবেন-তারা শীর্ষ পদ পাবেন। সেক্ষেত্রে সাংগঠনিক দক্ষতা এবং দলের প্রতি নিবেদিতরাই পদে আসবেন। বিতর্কিতরা কোনোভাবেই যেন পদে আসতে না পারে, সে বিষয়ে সজাগ রয়েছে কেন্দ্রীয় কমিটি। বিশ্বস্ত যোগ্য দুর্দিন দুঃসময়ের পরীক্ষিতদের মধ্যেই ভরসা রাখবেন, এমনটাই মনে করেছন মহানগরীর নেতারা। উল্লেখ্য, সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই কামরাঙ্গীরচর থানা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ পুর্নাঙ্গ কমিটি হয়েছিল। ঔ কমিটিতে আবুল হোসেন সরকার সভাপতি এবং সোলায়মান মাদবর সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। বর্তমান সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক নাকি চমক দেয়ার মতো অন্য কেউ? সম্মেলনে কার ভাগ্যে কী জুটবে, কে পদোন্নতি পাচ্ছেন আর কারা পদ হারাচ্ছেন? আগামী নতুন নেতৃত্বে ব্যাপক নাকি সামান্য পরিবর্তন আসবে- এমনটা এখন ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের কমন প্রশ্ন। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। তাঁরা মনে করছেন, নতুন নেতৃত্ব আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করবে। দূর হবে দলীয় কোন্দল।


আরো পড়ুন