শিরোনাম :

  • ডি মারিয়া উড়িয়ে দিলেন রিয়ালকে তিন সপ্তাহ পরিকল্পনা, অতঃপর অভিযানের গ্রিন সিগন্যাল কোহলির ব্যাটে সহজ জয় ভারতের বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদুর বাড়িতে হামলা জাবি উপাচার্যকে পদত্যাগের জন্য আল্টেমেটাম
ব্লগার ওয়াশিকুর হত্যা : তদন্তকারী কর্মকর্তাকে জেরা ২০ জুন
নিজস্ব প্রতিবেদক :
২৮ মে, ২০১৯ ১৫:১৭:৫১
প্রিন্টঅ-অ+


রাজধানীতে ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবু হত্যার ঘটনায় আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৫ সদস্যের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছেন মামলার শেষ তদন্তকারী কর্মকর্তা ও তৎকালীন গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক শাহ মশিউর রহমান। বর্তমানে তিনি সহকারী পুলিশ কমিশনার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৮ মে) ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক রবিউল আলমের আদালতে তিনি এই সাক্ষ্য দেন। এদিন তার সাক্ষ্য শেষ হয়। তাকে জেরার জন্য আগামী ২০ জুন দিন ধার্য করেছেন আদালত।

এর আগে গত ২০ মে তিনি আদালতে সাক্ষ্য দেন। সেদিন তার সাক্ষ্য শেষ না হওয়ায় পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য ২৮ মে দিন ধার্য করেন আদালত। মামলায় এ পর্যন্ত ২৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ হয়েছে।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, বিগত ২০১৫ সালের ৩০ মার্চ সকালে রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বেগুনবাড়িতে দীপিকার ঢাল এলাকায় বাসা থেকে বের হয়ে অফিসে যাওয়ার পথে খুন হন ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবু। এর পরপরই জনতার সহায়তায় পুলিশ জিকরুল্লাহ ও আরিফুল ইসলাম নামে দুই মাদরাসাছাত্রকে আটক করে।

ফেসবুক ও ব্লগসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম নিয়ে লেখালেখি করার কারণে বাবুকে হত্যা করা হয়েছে বলে জিকরুল্লাহ ও আরিফুল স্বীকার করেছেন। আটকের সময় তাদের কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত তিনটি চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

বাবু হত্যার ঘটনায় আটক জিকরুল্লাহ ও আরিফুল ইসলামসহ চারজনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামি করে ওই রাতে তেজগাঁও থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন তার ভগ্নিপতি মনির হোসেন। পরে আটক দুইজনকে এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর ডিবি পুলিশ আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের ৫ সদস্য জিকরুল্লাহ, আরিফুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম, হাসিব আব্দুল্লাহ (পলাতক) ও আবু তাহের জুনায়েদের (পলাতক) বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

২০১৬ সালের ২০ জুলাই আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ এসএম জিয়াউর রহমান।



আমার বার্তা/২৮ মে ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন