শিরোনাম :

  • পুরান ঢাকায় অবাধে চলছে নিষিদ্ধ পলিথিন উৎপাদন কারণ ছাড়াই বেড়েছে ভোজ্যতেলের দাম ৭৫ হাজার ৫৯০ হজযাত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেনক্যারিবীয় দলে ফিরলেন নারিন-পোলার্ড আসিফের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ১১ সেপ্টেম্বর
কঙ্গনাকে সমর্থন করলেন হৃতিকের বোন
বিনোদন ডেস্ক :
২০ জুন, ২০১৯ ১৩:১৯:৩১
প্রিন্টঅ-অ+


বলিউড অভিনেতা হৃতিক রোশান ও অভিনেত্রী কঙ্গনাকে রাণৌতের মধ্যে দ্বন্দ্বের কথা কারো অজানা নয়। এ নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়িও কম হয়নি। দুজনের এ বিবাদে কেউ কঙ্গনাকে আবার কেউ হৃতিককে সমর্থন দিয়েছেন। তবে এবার ভাইকে ছেড়ে কঙ্গনাকেই সমর্থন জানালেন হৃতিকের বোন সুনাইনা।

মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে সুনাইনা লিখেছেন, ‘আমি সব সময়ই কঙ্গনাকে সমর্থন করে আসছি।’ তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু লেখেননি তিনি। তার আগে অন্য একটি টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘নরকে বসবাস চলছেই, আমি ক্লান্ত।’

এদিকে সুনাইনার টুইটের পর কঙ্গনার বোন ও মুখপাত্র রাঙ্গোলি চান্ডেল এ বিষয়ে একাধিক ‍টুইট করেন। এতে তিনি লিখেছেন, ‘কঙ্গনার সাহায্য চেয়েছেন সুনাইনা কারণ দিল্লির একটি মুসলিম ছেলেকে ভালোবাসার কারণে তার পরিবার তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করছে। গত সপ্তাহে তারা একজন নারী পুলিশকে ডেকেছিল, যে সুনাইনা থাপ্পড় মারে, তার বাবাও তাকে আঘাত করেছে, তার ভাই তাকে জেলে রাখতে চাইছে, আমরা খুবই ভয় পাচ্ছি কারণ তার ভয়ংকর পরিবার তার ক্ষতি করতে পারে।

আমরা এটি সবার সামনে প্রকাশ করছি কারণ সুনাইনা কঙ্গনার কাছে কল করছে এবং সবসময় কাঁদছে, কঙ্গনা বুঝতে পারছে না কীভাবে তাকে সাহায্য করবে। ফলে কঙ্গনা এখন সুনাইনার নম্বর ব্লক করে রেখেছে কিন্তু আমরা তার (সুনাইনা) সুরক্ষা নিয়ে ভয় পাচ্ছি। যে কাউকে ভালোবাসার অধিকার সবারই রয়েছে, আশা করছি রোশান পরিবার এ বিষয়টি জানতে পেরে ভয় পাবে এবং পিছু হটবে।’

এর আগে শোনা গিয়েছিল, সুনাইনা বাইপোলার ডিজঅর্ডারে আক্রান্ত। তবে পরবর্তী সময়ে এ গুঞ্জন উড়িয়ে তিনি জানান, বাইপোলার নয়, অ্যালকোহলে আসক্ত হওয়ায় রিহ্যাবে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি।

স্পটবয়কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সুনাইনা বলেন, ‘আমি বাড়ি ছেড়ে আলাদা থাকতে চেয়েছিলাম। সবসময় মা-বাবার শাসনে থাকতে পারছি না। এটা করো না। মদ পান করো না। এই ছেলের সঙ্গে মিশবে না, ওই ছেলের সঙ্গে মিশবে না। নিজেকে আবদ্ধ মনে হয়। আমার মা-বাবা একটু বেশিই রক্ষণশীল।

যদি আমি মাঝে মাঝে মদ খাই তাহলে কি আবার অ্যালকোহলে আসক্ত হয়ে যাব? বন্ধুদের সঙ্গে যদি পার্টিতে যাই দোষ কোথায়? কোনো ছেলের সঙ্গে দেখা করলে সমস্যা কোথায়? ওবেরয় স্প্রিংয়ে (আন্ধেরি) একটি বাড়ি আমার পছন্দ হয়েছিল, কিন্তু এর ভাড়া আমার সাধ্যের বাইরে ছিল। সত্যি বলতে আমাদের জুহুর বাড়ি ছেড়ে প্রায় এক মাস আগে বের হয়ে গিয়েছিলাম এবং বান্দ্রার একটি হোটেল ছিলাম। পরিবারের সদস্যরা আমাকে ফিরে আসতে অনুরোধ করে। হৃতিক যদি আলাদা থাকতে পারে আমি কেন পারব না? ’



আমার বার্তা/২০ জুন ২০১৯/জহির

 


আরো পড়ুন