শিরোনাম :

  • খাদ্যসংকটে বানভাসি মানুষ বিচারকদের নিরাপত্তায় কী ব্যবস্থা : হাইকোর্ট সিভিল সার্ভিসের সামর্থ্য বহুগুণে বৃদ্ধি করেছি : প্রধানমন্ত্রী ট্রেভর বেইলিসকে দলে ভেড়াল কেকেআর পাটুয়াটুলীতে ধসে পড়া ভবন থেকে বাবা-ছেলের মরদেহ উদ্ধার
কুকুরকে হারিয়ে মেয়র নির্বাচিত হলো ছাগল!
আমার বার্তা ডেস্ক :
১২ মার্চ, ২০১৯ ১২:৫৫:৫৯
প্রিন্টঅ-অ+

এতদিন ধরে দেখে আসছেন নির্বাচন শুধু মানুষের মধ্যেই হয়। তবে কখনো কি দেখেছেন পশুদের মধ্যে হতে? যুক্তরাষ্ট্রের একটি শহর তা-ই করে দেখাল। দেশটির ভারমন্ট অঙ্গরাজ্যের একটি শহরের মেয়র নির্বাচিত হয়েছে একটি ছাগল।


লিঙ্কন নামের ছাগলটির বয়স মোটে ৩ বছর। এই বয়সেই রীতিমতো একটি শহরের মেয়রের পদ পেয়ে গেল ছাগলটি। মোট ১৩টি ভোট পেয়ে নিকটবর্তী প্রতিদ্বন্দ্বী একটি কুকুরকে হারিয়ে দিল সে।


কিন্তু ভাবছেন, একটি আস্ত শহরের মেয়র একটি ছাগল কী করে হলো? এবার খুলে বলছি। ভারমন্টের ছোট্ট শহর ফেরায় হ্যাভেন। শহরটির জনসংখ্যা মোট আড়াই হাজার মতো। সেই অর্থে এই শহরের মেয়র বলে কোনো পদ নেই। শহরের প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করেন টাউন ম্যানেজার। বর্তমানে ফেয়ার হ্যাভেনের টাউন ম্যানেজারের পদে রয়েছেন জোশেফ গুন্টার। আসলে গুন্টার শহরে একটি খেলার মাঠ তৈরি করতে চাইছিলেন। কিন্তু তার কাছে উপযুক্ত অর্থ ছিল না। তাই তিনিই পরিকল্পনা করেন মেয়র পদে নির্বাচন করানোর।


খবরের কাগজে গুন্টার জানতে পেরেছিলেন মিসিসিপির এক ছোট্ট গ্রামে প্রধান নির্বাচিত হয়েছে একটি বিড়াল। তখনই আইডিয়াটা মাথায় খেলে যায় গুন্টারের। তিনি ঠিক করেন ফেয়ার হ্যাভেনেও মেয়র পদে নির্বাচন করবেন। পদটি হবে সাম্মানিক। আর এই ভোটে অংশ নেবে গৃহপালিত পশুরা। নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার জন্য প্রত্যেক প্রার্থীকে জমা দিতে হবে পাঁচ ডলার করে। এভাবে মাঠ তৈরির জন্য টাকাও উঠে যাবে।


যেই ভাবা সেই কাজ। লিঙ্কনসহ ১৫টিরও বেশি গৃহপালিত পশু প্রার্থী হয়। তাদের মধ্যে নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১৩টি ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছে ছাগলটি। লিঙ্কন স্থানীয় একটি স্কুলের শিক্ষিকার গৃহপালিত পশু। তার নিকটবর্তী প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল একটি কুকুর।


টাউন ম্যানেজার গুন্টার জানিয়েছেন, নতুন মেয়রকে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। মোট একবছর মেয়র পদে থাকবেন অবলা প্রাণিটি। শহরের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সাম্মানিক পদ অলংকৃত করবে নতুন মেয়র।


প্রথম বছরের নির্বাচন সম্পর্কে গুন্টারের অভিমত, প্রথম বছর নির্বাচনে ততটা সাড়া মেলেনি। মোট ৫৩টি ভোট পড়েছে। তবে, তিনি আশাবাদী আগামী বছরগুলোতে ভোটে মানুষ সাড়া দেবে। প্রতিবছর নতুন নতুন পশু বা পাখিকে মেয়র নির্বাচিত করা হবে।


‘আজকের ঘৃণ্য রাজনীতি অনেক নেতাকেই পশু বানিয়ে দেয়। তাই আমরা পশুকেই নেতা বানিয়েছি। এটা আসলে একটা বার্তা দেয়ার চেষ্টা’-যোগ করেন টাউন ম্যানেজার।


 


আমার বার্তা/১২ মার্চ ২০১৯/রিফাত

আরো পড়ুন