শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
প্রতিদিন ২০ কিলোমিটার হাঁটেন মমতা!
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
১৬ মে, ২০১৯ ১১:৪৮:২৫
প্রিন্টঅ-অ+


গাড়িতে চেপে রোড শো করার বদলে হেঁটে মিছিল করতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চেষ্টা করেন পাঁচ মিনিটের বেশি এক জায়গায় না বসে থাকার। তাই দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়েই সব ফাইল সই করেন। তার মতে, ‘একবার বসে পড়লেন তো গেলেন! আর উঠতেই ইচ্ছে করবে না। শরীরের নাম মহাশয়। যা সওয়াবে, তাই সয়।’

বুধবার (১৫ মে) আগরপাড়ার ঊষুমপুরে এক নির্বাচনী জনসভায় ভাষণের ফাঁকে এভাবেই স্বাস্থ্য সচেতনতার বার্তা তুলে ধরেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়া তার পরামর্শে বাড়তি গুরুত্ব পায় আগের দিনে নারীদের কাজ করার পদ্ধতির প্রসঙ্গ।

আগে কেন মেয়েদের কম রোগ হতো? এমন প্রশ্ন তুলে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মেয়েরা ঘর মোছা, মশলা বাটা, তরকারি কাটা, কাপড় কাচা সব করতো। এতে হাত ও কোমরসহ সারা শরীরের ব্যায়াম হয়ে যেত। এখন যন্ত্র আসায় সবাই মেশিনের মতো হয়ে গেছে। অনেক দিন গাড়ি না চালালে মরিচা ধরে যায়। অনেকেই এখন যন্ত্রের মাধ্যমে শরীরচর্চা করেন। তবে কৃত্রিম কিছুই ভালো নয়। মনে রাখবেন, ওল্ড ইজ অলওয়েজ গোল্ড। শুধু হাঁটলেও ক্যালরি বেশি ঝরে।’

নিজের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গত দেড় মাস ধরে একটানা নির্বাচনের প্রচার করছি। প্রতিদিন ২০ কিলোমিটার করে হাঁটি। আমি না হাঁটলে আমার মস্তিষ্ক হাঁটবে না। এমনকি আমি গলা ও মুখের ব্যায়ামও করি। নিজে সুস্থ থাকলে তবেই তো লড়াইটা জমবে।’

মমতার পরামর্শের সঙ্গে খানিকটা সহমত জানিয়েছেন অস্থি-রোগ চিকিৎসক রামেন্দু হোম চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘নিজেকে সুস্থ রাখতে শারীরচর্চা অবশ্যই জরুরি। তবে এখন প্রতিযোগিতার ইঁদুর দৌঁড়ে এমনিতেই সকলে শামিল। সে জন্য আগের দিনের মতো মেয়েদের এখন পক্ষে ঘরের কাজ হাতে করাটা সময়সাপেক্ষ। ফলে সকলকে যন্ত্রের সাহায্য নিতেই হয়।’

তিনি জানান, সব বয়সেদেরই প্রতিদিন সময় ধরে ব্যায়াম করতে হবে। সুস্থ থাকতে প্রোটিন ও ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খাদ্য তালিকায় যোগ করার ব্যাপারে নজর রাখতে হবে।

চিকিৎসকরা বলছেন, ছোটদের জাঙ্ক ফুড খাওয়ানোর প্রবণতা কমাতে হবে। তাদের মাঠে-ঘাটে খেলাধুলা, ক্যারাটে ইত্যাদির নানা ধরনের ব্যায়ামের মধ্যে রাখতে হবে। হাঁটার কোনো বিকল্প নেই। হাঁটলে পেশীতে রক্ত সংবহন ভাল হয়, অক্সিজেন বাড়ে, ভাল কোলেস্টেরল (এইচডিএল কোলেস্টেরল) বাড়ে। এই কোলেস্টেরল হৃদ্যন্ত্রকে সুরক্ষিত রাখে।



আমার বার্তা/১৬ মে ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন