শিরোনাম :

  • একদিন পিছিয়ে আজ হেমন্তের শুরু টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ বছিলায় জঙ্গি আস্তানায় অভিযান : তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ১৮ নভেম্বর সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৫ ওমরাহ যাত্রী নিহত পাক-ভারতের গোলাগুলি, নিহত ৪
সৌদিতে জোড়া ড্রোন হামলা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
৩০ জুন, ২০১৯ ১৪:১৭:১৬
প্রিন্টঅ-অ+


ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট বলছে, সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলের একটি আবাসিক এলাকায় ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথি। তবে লক্ষ্যে আঘাত হানার আগেই দু’টি ড্রোনই ভূপাতিত করেছে সৌদি সামরিক বাহিনী। শনিবার রাতের দিকে এই হামলা হয় বলে জানিয়েছে আমিরাতের ইংরেজি দৈনিক দ্য ন্যাশনাল।

সামরিক জোটের মুখপাত্র কর্নেল তুর্কি আল মালিকির বরাত দিয়ে সৌদির সরকারি সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি (এসপিএ) বলছে, ড্রোন দু’টি সীমান্তের আসির এবং জিজান প্রদেশের দিকে ছুটে যাচ্ছিল। আসিরে আবাসিক এলাকা লক্ষ্য করে ওই হামলা হুথি বিদ্রোহীরা চালিয়েছে।

ইয়েমেনের এই বিদ্রোহী গোষ্ঠী নিয়ন্ত্রিত টেলিভিশন চ্যানেল আল-মাশিরাহ বলছে, জিজানে সৌদি আরবের সামরিক বাহিনীর অবস্থানে ও স্থানীয় একটি বিমানবন্দরের হ্যাঙ্গার লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে।

এর আগে গত শনিবার সৌদি আরবের আভা বিমানবন্দরে হুথি বিদ্রোহীদের ড্রোন হামলায় অন্তত একজন নিহত ও আরো সাতজন আহত হয়।

সম্প্রতি সৌদি আরবের সীমান্তবর্তী বিভিন্ন প্রদেশে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বাড়িয়েছে ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিরুদ্ধে লড়াইরত হুথি বিদ্রোহীরা। ২০১৪ সালে রাজধানী সানা দখলের পর সৌদি সমর্থিত ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর আল হাদিকে ক্ষমতা থেকে বিতাড়িত করে হুথি। তারপর থেকেই দেশের বাইরে তিনি।

হাদিকে ক্ষমতায় ফেরাতে ২০১৫ সালের জুনে ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে হামলা শুরু করে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব সামরিক জোট।

কয়েক সপ্তাহ ধরে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদসহ দেশটির আরো কয়েকটি শহরে ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা চালিয়েছে হুথিরা। গত মাসের শেষ দিকে পবিত্র নগরী মক্কা ও জেদ্দায় দুটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হলে তা ধ্বংস করে সৌদি প্রতিরক্ষা বাহিনী। প্রায় একই সময় সৌদির নাজরান বিমানবন্দরে তিনবার হামলা চালানোর দাবি করে হুথি।

ইয়েমেনের এই বিদ্রোহীগোষ্ঠী বলছে, তারা সৌদি আরব, ইয়েমেন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৩০০ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাকে টার্গেট করে হামলা অব্যাহত রাখবে।



আমার বার্তা/৩০ জুন ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন