শিরোনাম :

  • আজ প্রধানমন্ত্রী ৭ বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করবেন তিনটি সংসদীয় স্থায়ী কমিটি পুনর্গঠন বিমানে এল ২২৫টি অস্ট্রেলিয়ান গরু সৌদি থেকে ফিরছেন নির্যাতনের শিকার সেই সুমি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের নতুন সভাপতি ওয়াটসন
ট্রাম্পকে অভিশংসনে আদালতের সায়
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
২৭ অক্টোবর, ২০১৯ ১০:১৮:৪২
প্রিন্টঅ-অ+


মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের (ইমপিচমেন্ট) তদন্তকে বৈধ বলে রায় দিলেন দেশটির আদালত। মার্কিন জেলা বিচারক বেরিল হওয়েল বিরোধী দল ডেমোক্র্যাটদের পক্ষে রায় দিয়ে বলেছেন, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে কংগ্রেসের অভিশংসন প্রক্রিয়া আইনসম্মত।

শুধু আদালত যে কংগ্রেসের পক্ষে রায় দিয়েছেন তাই নয়, মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ ও ট্রাম্পের জড়িত থাকা-সংক্রান্ত সাবেক স্পেশ্যাল কাউন্সেল রর্বাট ম্যুলারের প্রতিবেদন কোনও রকম কাটাছেঁড়া না করেই হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস-এর বিচারবিভাগীয় কমিটির হাতে তুলে দিতে বলেছেন আদালত।

রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা ব্যবহার করে নিজের নির্বাচনী ফায়দা তুলতে প্রতিবেশী দেশ ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টকে অপর প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর বিরুদ্ধে তদন্তের অনুরোধ করার অভিযোগ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। কংগ্রেসে প্রস্তাব পাস না করিয়ে বিরোধী ডেমোক্র্যাটরা অভিশংসনের তদন্ত শুরু করায় আপত্তি তোলেন রিপাবলিকানরা।

তবে আদালত বিরোধী দল ডেমোক্র্যাটের পক্ষে বললেন, অভিশংসনের ব্যাপারে হাউসের হাতে অনেক ক্ষমতা দেয়া আছে সংবিধানে। সুতরাং প্রস্তাব পাস করাতেই হবে, এমন বাধ্যবাধকতা নেই। হাউসের বিচারবিভাগীয় কমিটি ম্যুলার প্রতিবেদন জমা দেয়ার তলব আগেই পাঠিয়েছিল।

ম্যুলার প্রতিবেদন আগামী বুধবারের মধ্যে কংগ্রেস কমিটির হাতে তুলে দিতে বিচার মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হোয়াইট হাউস ওই অভিশংসন প্রস্তাবকে একপেশে, অবৈধ ও অসাংবিধানিক বলে অভিহিত করেছে। তদন্তে কোনো সহায়তা করবে না বলেও জানিয়েছে তারা।

প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ট্রাম্প ফোনালাপে সাহায্য চেয়েছিলেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিশংসনের কার্যক্রম শুরু করে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ। স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে।

ট্রাম্পের অভিশংসনের পক্ষে ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে জোর সমর্থন রয়েছে। তবে তদন্তের মধ্য দিয়ে সিনেটে ট্রাম্পের অভিশংসন প্রস্তাব উঠলে তা পাস হওয়ার সম্ভাবনা কম। কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে বিরোধীরা সংখ্যগরিষ্ঠ হলেও উচ্চকক্ষ সিনেট রিপাবলিকানদের দখলে।



আমার বার্তা/২৭ অক্টোবর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন