শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
নির্বাচন পেছাবে কিনা সিদ্ধান্ত ইসির : বাণিজ্যমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক :
১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ১৪:১২:৩৭
প্রিন্টঅ-অ+


নির্বাচন আর পেছানো বাস্তবসম্মত নয় উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, নির্বাচন আর পেছাবে কি-না সে সিদ্ধান্ত নির্বাচন কমিশনের (ইসি)। তবে আমাদের দলীয় সিদ্ধান্ত নির্বাচন আর পেছানো যাবে না।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় বস্ত্র ও পোশাক শিল্পের ওপর চারটি আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন ২৩ ডিসেম্বর হওয়ার কথা ছিল। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে পিছিয়ে ৩০ ডিসেম্বর করা হয়েছে। এখন তারা বায়না ধরেছে নির্বাচন আরও পেছাতে হবে।

তিনি বলেন, 'এটা বাস্তব সম্মত না। কারণ নির্বাচন করতে গেলে কোনো কোনো কেন্দ্রে গোলযোগের কারণে ভোট স্থগিত হতে পারে। সেখানে পুনরায় ভোট নিতে হবে। নির্বাচন কমিশনের হাতে সময় তো থাকতে হবে'। আমরা আশা করি আগামী নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক ও নিরপেক্ষ হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সাধারণত নির্বাচনকালীন সময়ে রাজনীতি কখনো কখনো অস্থিতিশীল হয়। যেমন ২০১৪ সালে বিএনপি করেছিল। তারা মায়ের কোল খালি করেছিল, আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্য ও পোলিং অফিসার খুন, হরতাল-অবরোধের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছিল। কিন্তু তারা উপলব্ধি করেছে এটা রাজনীতির পথ নয়।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, 'অবাক লাগে গতকাল (বুধবার) ইসির নির্দেশ পালন করতে গিয়েছিল আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। তারা বলেছিল মিছিল নিয়ে এভাবে আসবেন না। কারণ ট্রাফিকের সমস্যা হয়, মানুষের দুর্ভোগ হয়।'

তিনি বলেন, প্রশ্ন আসতে পারে আওয়ামী লীগও তো করেছিল। কিন্তু আওয়ামী লীগের যেখানে কার্যালয় সেখানে ট্রাফিক নাই। পুলিশ তাদেরকে (বিএনপির কর্মী) বলেছিল শৃঙ্খলা বজায় রাখতে। আকস্মিকভাবে গাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হল। আজকে অনলাইনে দেখলাম যে গাড়ির ওপরে উঠেছে, যে দেশলাই দিয়ে আগুন দিচ্ছে তাদের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা ছাত্রদলের কর্মী।

বর্তমানে মন্ত্রীদের দায়িত্ব পালন সম্পর্কে তিনি বলেন, আমরা এখন নির্বাচনকালীন সরকারের দায়িত্ব পালন করছি। দৈনন্দিন কাজ করছি, রুটিন ওয়ার্ক। নির্বাহী ক্ষমতা প্রয়োগ করে কোনো সিদ্ধান্ত আমরা নেব না। প্রশাসন এখন ইসির অধীনে।



আমার বার্তা/১৫ নভেম্বর ২০১৮/জহির


আরো পড়ুন