শিরোনাম :

  • মধ্যরাত পর্যন্ত রুদ্ধদ্বার বৈঠক, শর্ত জুড়ে দিয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহার আজ সশস্ত্রবাহিনী দিবস ওয়াটারফ্রন্ট স্মার্টসিটি হবে কেরানীগঞ্জে ছোট ভাই প্রেসিডেন্ট, বড় ভাই এবার প্রধানমন্ত্রী ৭ তলার জানালা দিয়ে উড়ে আসছে লাখ লাখ টাকা, কুড়োতে হুড়োহুড়ি
রিকশাচালক-মালিকরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেবেন
নিজস্ব প্রতিবেদক :
০৯ জুলাই, ২০১৯ ১৪:১৩:১৯
প্রিন্টঅ-অ+


রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ তিনটি সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর স্মারকলিপি দেবেন রিকশাচালক ও মালিকরা।

মঙ্গলবার রাজধানীর মুগদা স্টেডিয়ামের সামনে মানববন্ধনে এ কথা জানানো হয়। অবৈধ রিকশা উচ্ছেদ ও সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে এ মানববন্ধন করেন রিকশাচালক ও মালিকরা।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ জাতীয় রিকশা ও ভ্যান শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক ইনসুর আলী জানান, যেসব রিকশার বৈধ লাইসেন্স আছে রাজধানীর সড়কগুলোতে তা অবাধে চলতে দিতে হবে। ঢাকার দুই সিটি মেয়র রিকশা চলাচলের ওপর যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন- তা ক্ষমতার অপব্যবহার। তারা বর্তমান সরকারের সুনাম ক্ষুণ্ন করতে এ ধরনের উদ্যোগ নিয়েছেন।

তিনি বলেন, মেয়রদের এ ধরনের সিদ্ধান্তই প্রমাণ করে তারা গরিবের পক্ষে নেই। আমরা খেটে খাওয়া মানুষ পেটের দায়ে রাজধানীতে রিকশা চালাই। তাই আমাদের শেষ আশ্রয়স্থল  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি আরও বলেন, আমরা দুই মেয়রকে আগামীকাল (১০ জুলাই) পর্যন্ত সময় দেব। এ সময়ের মধ্যে রাজধানীর তিনটি সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না করলে ১১ জুলাই জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান করব। ওইদিন প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেব। আশা করছি প্রধানমন্ত্রী আমাদের এ দাবি মেনে নেবেন। কারণ উনি গণমানুষের নেত্রী।

মানববন্ধনে রিকশাচালক ও মালিকরা বলেন, কোনো উপায় খুঁজে না পেয়ে পেটের দায়ে মানুষ রিকশা চালায়। মেয়র মেইন সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধ করেছেন। তাহলে আমরা কোথায় রিকশা চালাব?

তারা বলেন, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন রাজধানীতে ছোট যানবাহন বন্ধ করতে, কিন্তু মেয়র অবৈধ যানবাহন বন্ধ না করে বৈধ রিকশা চলাচল বন্ধ করেছেন, এটা ক্ষমতার অপব্যবহার।

রাজধানীতে ৮৮ হাজার রিকশার বৈধ লাইসেন্স রয়েছে দাবি করে চালক ও মালিকরা নেতারা বলেন, ৮৮ হাজার রিকশার অনুমতি দিয়েছে সিটি কর্পোরেশন। এসব বৈধ রিকশা রাজধানীর সব সড়কে অবাধে চলাচলের সুযোগ করে দিতে হবে।

একই সঙ্গে সিটি কর্পোরেশনের কিছু অসৎ কর্মকর্তা ও বিভিন্ন সংস্থার অবৈধ লাইসেন্স বাণিজ্য বন্ধ করতে হবে। এ সময় বৈধ রিকশা চলাচলের অনুমতি ও অবৈধ রিকশা বন্ধের দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ রিকশা ও ভ্যানমালিক ফেডারেশনের সভাপতি আর এ জামানসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার রিকশাচালক ও মালিকরা।



আমার বার্তা/০৯ জুলাই ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন