শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
“নারীর ক্ষমতায়ন ও জেন্ডার সমতা অর্জনে শিক্ষা, প্রশিক্ষণ, দক্ষতা-সক্ষমতা বৃদ্ধি নিশ্চিত করতে হবে”- প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা
নিজস্ব প্রতিবেদক
২৫ মে, ২০২২ ১৯:৪৭:০৬
প্রিন্টঅ-অ+


অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কান্ট্রিজ (ওআইসি) ভুক্ত দেশে নারীর ক্ষমতায়ন ও জেন্ডার সমতা অর্জনে শিক্ষা, প্রশিক্ষণ, দক্ষতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থান নিশ্চিত করার আহবান জানিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।  

তিনি বলেন, নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়ন ব্যক্তি এবং পরিবারের সদস্যদের উপলব্ধি, স্বামী-স্ত্রীর ইতিবাচক ভূমিকা, গৃহস্থালির কাজ ভাগাভাগি, সামাজিক রীতিনীতি, ধর্মীয় বিশ্বাস, মূল্যবোধ এবং পুরুষের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের সাথে জড়িত। এজন্য নারীদের প্রশিক্ষণ, উপযুক্ত শিক্ষা, টেকনিক্যাল সাপোর্ট, আর্থিক সহায়তা প্রদান করতে হবে। নারীর প্রতি ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি সৃষ্টি করতে সচেতেনতামূলক কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। পরিবার থেকেই নারীর ক্ষমতায়ন ও সমতা অর্জনের প্রাথমিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা আজ ২৫ মে মিসরের কায়রোতে অনুষ্ঠিত এবং অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কান্ট্রিজ (ওআইসি) এর উইমেন ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন আয়োজিত "পরিবারের মধ্যে নারী ও মেয়েদের ক্ষমতায়নে পরিবার-ভিত্তিক নীতির ভূমিকা" (The Role of Family-Oriented Policies in Empowering Women and Girls within the Family) অনলাইন সিম্পোজিয়ামে এ কথা বলেন। মিসরের ন্যাশনাল উইমেন কাউন্সিল এর প্রেসিডেন্ট মিজ ড. মায়া মুরসী (Ms Dr. Maya Morsy) এর সভাপতিত্বে অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কান্ট্রিজ (ওআইসি) ডিজি ড. আমিনা আল হাজরি (Dr Amina Al Hajri) সহ মালদ্বিপ, গাম্বিয়া, তুরস্ক, পাকিস্তান, মিসর ওমান, প্যালেস্টাইন, ইরাক, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও সৌদি আরবসহ ওআইসিভুক্ত বিভিন্ন দেশের নারী উন্নয়ন ও জেন্ডার সমতা বিষয়ক মন্ত্রী বক্তৃতা করেন।

প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা আজ বিকেলে ঢাকায় বাংলাদেশ শিশু একাডেমি থেকে ভার্চ্যুয়ালি এ সিম্পোজিয়ামে যোগদান করেন। এসময় মহিলা অ শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. মু: আনোয়ার হোসেন হাওলাদার উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি, শিশু নীতি,শিক্ষা নীতি, স্বাস্থ্য নীতি, এডোলেসন্ট হেলথ স্ট্রাটেজি, বাল্য বিয়ে নিরোধ আইন, যৌতুক নিরোধ আইন, পারিবারিক সহিংসতা প্রতিরোধ আইন এবং নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। যা পরিবার থেকেই নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করছে। এসকল নীতি, কৌশল, কর্মপরিকল্পনা ও আইন প্রণয়ন করেছেন এবং তা বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বে রোল মডেল সৃষ্টি করেছে। বাংলাদেশে আজ প্রধামন্ত্রী, স্পীকার, বিরোধী দলীয় নেতা ও সংসদ উপনেতা নারী যা বিশ্বে অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।  

 এ সিম্পোজিয়ামে অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কান্ট্রিজ (ওআইসি) ভুক্ত দেশের নারী ও জেন্ডার সমতা বিষয়ক মন্ত্রী এবং প্রতিনিধিগণ নারীর উন্নয়ন ও নারীর ক্ষমতায়নে নিজ নিজ দেশের কার্যক্রম তুলে ধরেন। এসময় তারা নারীর ক্ষমতায়েন ওআইসি ভুক্ত দেশের জন্য বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন। এসময় মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফরিদা পারভীন, অতিরিক্ত সচিব মোঃ মুহিবুজ্জামান ও শিশু একাডেমির মহাপরিচালক মোঃ শরিফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।



 


আরো পড়ুন