শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
মোহামেডানকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে আবাহনী
স্পোর্টস ডেস্ক :
২৫ মার্চ, ২০১৯ ১৮:৪৬:০৯
প্রিন্টঅ-অ+


আবাহনী-মোহামেডানের সেই ঐতিহ্যবাহী লড়াই যেন রং হারিয়েছে। এখন আর দর্শকদের আগের মতো টানে না দুই দলের যুদ্ধ। মাঠেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয় না। মিরপুর শেরে বাংলায় আজ যেমন একতরফা এক ম্যাচ দেখল ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি মোহামেডানকে ৬ উইকেট আর ১৫ বল হাতে রেখে হারিয়েছে আবাহনী।

মোহামেডানের পুঁজিটাই অবশ্য লড়াই করার মতো ছিল না। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ২৪৮ রান তুলতে পারে রাকিবুল হাসানের দল। অথচ টপ অর্ডারের সবাই রান পেয়েছেন। বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে খেলতে পারলে সংগ্রহটা আরও বড় হতে পারতো সাদা কালোদের।

লিটন দাস আর আবদুল মজিদ উদ্বোধনী জুটিতে তুলেছিলেন ৪০ রান। ৩৮ বলে ২৭ রান করে লিটন সাজঘরের পথ ধরেন। ২৬ রান করতে গিয়ে আবদুল মজিদ খরচ করে ফেলেন ৬৭ বল।

মাঝে দুই হাফসেঞ্চুরিয়ান ইরফান শুক্কুর আর অধিনায়ক রাকিবুল হাসান রানের গতি বাড়ানোর চেষ্টা করেছেন। ৭৮ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ৫৭ রান করে আউট হন শুক্কুর। রকিবুল করেন ৫৪ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৫১। কিন্তু ওই যে, প্রথম দিকের ব্যাটসম্যানরা বল খরচ করে ফেলেছেন। শেষের দিকে আর সেটা পুষিয়ে উঠতে পারেনি মোহামেডান।

৩ উইকেটে ১৭২ রান ছিল দলটির। সেখান থেকে শেষ ৬১ বলে আর মাত্র ৭৬ রান যোগ করতে পেরেছে রাকিবুলের দল। হারিয়েছে ৪ উইকেট। চতুরঙ্গ ডি সিলভা ২৪ বলে ৩২ আর সোহাগ গাজী ২০ বলে করেন ২৭ রান।

আবাহনীর পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৯ ওভারে ৩১ রান খরচায় নেন ৩টি উইকেট। সমান ওভারে ২৯ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট নেন স্পিনার নাজমুল ইসলাম।

লক্ষ্য ২৪৯ রানের। জহুরুল ইসলাম আর সৌম্য সরকারের ১০৫ রানের উদ্বোধনী জুটি রান তাড়ার ভিতটা গড়ে দেয় আবাহনীকে। দুজনই অবশ্য আক্ষেপ নিয়ে ফিরেছেন। সৌম্য আউট হন ৪৩ রানে। আর জহুরুল মাত্র ৪ রানের জন্য সেঞ্চুরিটা ছুঁতে পারেননি। ১৩১ বল মোকাবেলায় ১২ বাউন্ডারিতে ৯৬ রানে শাহাদাত রাজীবের বলে বোল্ড হন তিনি। সৌম্যও একই বোলারের বলেই বোল্ড।

তবে ভালো একটা ভিত পাওয়ার পর পরের ব্যাটসম্যানরা খুব সহজেই দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যেতে পেরেছেন। তিন নাম্বারে নামা ওয়াসিম জাফর ৩৮ রানে আউট হন। শান্ত ফিরে যান ১৬-তে। পরে জহুরুল সেঞ্চুরির কাছে এসে হতাশ হলেও পঞ্চম উইকেটে মোসাদ্দেকের ১৮ আর সাব্বিরের অপরাজিত ২১ রানে ১৫ বল বাকি থাকতেই জয় তুলে মাঠ ছাড়ে আবাহনী।



আমার বার্তা/২৫ মার্চ ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন