শিরোনাম :

  • প্রথম ওভারেই নাসুমের আঘাত করোনায় একদিনে পুরুষের চেয়ে নারীর মৃত্যু দ্বিগুণ নাঈম-মুশফিকের অর্ধশতকে ১৭১ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর‘তিস্তায় মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে
সাতক্ষীরার দেবহাটায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামী পার্থ মন্ডল আটক
মোস্তাফিজুর রহমান, সাতক্ষীরা
২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৭:৪৫:০৬
প্রিন্টঅ-অ+


সাতক্ষীরার দেবহাটায় দশম শ্রেনীতে পড়ুয়া পূর্ণিমা দাসকে (১৬) বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার একমাত্র আসামী ভিকটিমের প্রেমিক পার্থ মন্ডলকে (২১) পুলিশ শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বৈকারী ইউনিয়নের কাথন্ডা সীমান্ত এলাকা থেকে আটক করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চাঞ্চল্যকর ও লোমহর্ষক এ ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামী পার্থ মন্ডলকে ধরতে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) সজিব খানের নেতৃত্বে দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি ফরিদ আহমেদ ও জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি বিশেষ টিম শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বৈকারী ইউনিয়নের কাথন্ডা সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতিকালে পার্থ মন্ডলকে আটক করে।

এর আগে শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে নিহত পূর্ণিমা দাসের বাবা টিকেট গ্রামের শান্তিরঞ্জন দাস বাদী হয়ে একই গ্রামের শিবপদ মন্ডলের ছেলে ডায়াগনষ্টিক কর্মচারী পার্থ মন্ডলকে একমাত্র আসামী করে দেবহাটা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১১, তাং ২৪.০৯.২০২১।

দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত পরিদর্শক (তদন্ত) ফরিদ আহমেদ চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ ও হত্যা মামলার একমাত্র আসামী পার্থ মন্ডলকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, স্কুল ছাত্রী পূর্ণিমা দাসকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়েরের পর থেকে মামলার একমাত্র আসামী পূর্ণিমা দাসের প্রেমিক পার্থ মন্ডলকে আটক করতে পুলিশ একাধিক স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। সর্বশেষ মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পলাতক পার্থ মন্ডলের অবস্থান শনাক্ত করে। আটককৃত পার্থ মন্ডলকে সাতক্ষীরা ডিবি পুলিশ কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের শান্তিরঞ্জন দাসের মেয়ে পূর্ণিমা দাস বৃহষ্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হয়ে সে আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। পূর্ণিমা দাস গাভা একেএম আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন।

পরদিন শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০ টার দিকে দেবহাটা থানা পুলিশ একই এলাকার তারক মন্ডলের পরিত্যক্ত বাড়ির সবজি বাগান থেকে পূর্র্ণিমা দাসের বিবস্ত্র মরদেহটি উদ্ধার করে। মরদেহটি উদ্ধারকালে নিহত পূর্ণিমা দাসের মুখমন্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত এবং গলায় শ্বাসরোধের সুষ্পষ্ট চিহ্ন দেখা যায়। এ সময় পুলিশ মরদেহের পাশে পড়ে থাকা ভিকটিমের বই, খাতা, জুতা ও পূর্ণিমার গোপন ব্যবহৃত মোবাইল ফোনও আলামত হিসেবে উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত মোবাইলের ক্ষুদে বার্তায় পূর্ণিমা দাস নিখোঁজ হওয়ার আগ মুহুর্তে তার প্রেমিক পার্থ মন্ডল পূর্ণিমাকে ওই পরিত্যক্ত বাগানের নিকট আসতে তার মোবাইলে এসএমএস করেছিল। উদ্ধারকৃত মোবাইলের কললিষ্ট থেকে প্রেমিক পার্থ মন্ডলের মোবাইল নম্বর ট্র্যাকিং এর মাধ্যমে পুলিশ চাঞ্চল্যকর এ হত্যা ও ধর্ষণ মামলার প্রাথমিক তদন্তসহ পার্থ মন্ডলকে আটকের জন্য অভিযান চালায়।

আমার বার্তা/গাজী আক্তার


আরো পড়ুন