শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
বদলগাছী উপজেলার বেগুনজোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ
রাসেল রানা, নওগাঁ প্রতিনিধি
১৭ অক্টোবর, ২০২১ ১৮:১৭:২৯
প্রিন্টঅ-অ+

নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার আধাইপুর ইউনিয়নের বেগুনজোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ে অফিস সহকারী, নিরাপত্তা কর্মী ও আয়াসহ তিন প্রার্থীর থেকে মোটা অঙ্কের অর্থ আত্মসাতের মাধ্যমে অযোগ্য প্রার্থীদের নিয়োগ প্রদানের নানা গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। 


সরকারি নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে নাটকীয় ভাবে স্কুলে নিয়োগ বোর্ড কমিটির মাধ্যমে লিখিত পরীক্ষা ও মৌখিক পরীক্ষা না নিয়ে সভাপতির বাড়ীতে মোটা অঙ্কের অর্থ নিয়ে তিনটি পদে নিয়োগ সম্পন্ন করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি। ঐ বিদ্যালয়টি বাজার সংলগ্ন হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে  আলোচনা সমালোচনার গুঞ্জন ও নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ  ওঠে। 


গত ২০ আগস্ট একটি পদে মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে নিয়োগ সম্পন্ন করেন গোপনে। ৩০তারিখে দুইটি পদের জন্য বিদ্যালয়ে নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা করার কথা থাকলেও ঐদিন বিদ্যালয়ে কোনো নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা কমিটির সদস্যদের কাউকে বিদ্যালয়ে ঢুকতে দেখা যায়নি । 


পরে জানা গেছে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি, সাবেক বদলগাছী উপজেলা চেয়ারম্যান, শফি মাহমুদ এর বাসাতে গোপনে দুইটি পদে নিয়োগ সম্পন্ন এবং পাঁচ সদস্য কমিটির স্বাক্ষর গ্রহণ করে নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে বলেও জানা গেছে।


স্থানীয় এলাকাবাসী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, অফিস সহকারী পদে পরমান্দপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দীনের ছেলে মোঃ সৈকত হোসেন এবং নিরাপত্তা কর্মী পদে আবু সাঈদ ও আয়া পদে রনাহার গ্রামের মামুনের স্ত্রী সান্তা আক্তারকে কোন প্রকার নিযোগ বোর্ড পরিচালনা না করে  নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। নওগাঁ দয়ালের মোড় বাসাতে নিয়ে গিয়ে মোটা অঙ্কের লেনদেন এর মাধ্যমে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তবে প্রধান শিক্ষক একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি এই জন্য তাঁর বিরুদ্ধে প্রকাশ্য কথা বলতে রাজি হয়নি কেউ। 


তিনি আরও বলেন, তিনটি পদে মোটা অঙ্কের অর্থ নিয়ে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। অযোগ্য প্রার্থীদের নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। ইতিপূর্বে প্রধান শিক্ষক, শাহাদত হোসেন শামীম (মিঠু) অনিয়ম দুর্নীতি করায় এলাকার কয়েক জন যুবক তাঁকে মারপিট করেছিলো বলে অভিযোগ করেন।     


নওগাঁ জেলা শিক্ষা অফিস এর (ডিজির প্রতিনিধি) জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল আজিজ সরদার এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে নিয়োগ বোর্ড সর্ম্পকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ৩০আগস্ট বেগুনজোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ে উপস্থিত থেকে নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা করা হয়েছে । দুইটিপদে কয়জন পরীক্ষার্থী প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন তিনি বলতে পারেননি। কিন্তু ৩০ আগস্ট বেগুনজোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ে কোনো নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা করা হয়নি বলে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, নিয়োগ বোর্ডের পাঁচসদস্য সেখানে উপস্থিত থেকে শূন্যপদে নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে।


ম্যানেজিং কমিটি সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান,এ্যাডঃ শফি মাহমুদ এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ৩০ আগস্ট নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা করা হয়নি। ২০ অথবা ২১ আগস্ট অফিস সহকারি, নিরাপত্তা কর্মী ও আয়াপদে নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।


বেগুনজোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহাদত হোসেন শামীম (মিঠু) এর সাথে ফোনে বা বিদ্যালয়ে গিয়ে তাঁর দেখা পাওয়া যায়নি। তবে তিনি একজন পরিচিত সাংবাদিককে দিয়ে নিউজ বন্ধ করার জন্য কয়েক বার মোটা অঙ্কের অফার করেন বলেও জানা গেছে। তাঁকে ফোন করে সাংবাদিক পরিচয় দিলে মোবাইল ফোনটি ব্যস্ত রাখেন।


বদলগাছী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এটিএম জিল্লুর রহমান তিনি বলেন, ৩০ আগস্ট বেগুনজোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ে কোনো নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা করা হয়নি। তিনি আরও বলেন, আমি বদলগাছী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নিয়োগ বোর্ড পরিচালনা করা হলে আমি জানবোনা। তবে বেগুনজোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ের শূন্যপদ গুলোতে নিয়োগ বোর্ডের মাধ্যমে নিয়োগ সম্পন্ন করা হবে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এর নিকট তথ্য চায়লে তিনি বলেন ১১ আগস্ট অথবা ১২ আগস্ট ঐ বিদ্যালয়ের শূন্যপদে নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে। আরও তথ্য প্রয়োজন হলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এর কাছে গিয়ে তথ্য নিয়ে আসেন। পরে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হুমকি দিয়ে বলেন নিউজ হলে, আইসিটি আইনে মামলা করবেন বলে হুমকি প্রদান করেন সাংবাদিকদের।


আমার বার্তা/ সি এইচ কে

আরো পড়ুন