শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
পেঁয়াজ নিয়ে দুশ্চিন্তায় কৃষকরা
১৭ এপ্রিল, ২০২২ ১১:৩৭:৩৪
প্রিন্টঅ-অ+

ফরিদপুরে জমি থেকে পেঁয়াজ তোলা হচ্ছে। দেশের দ্বিতীয় পেঁয়াজ উৎপাদনকারী এ জেলায় এবার ফলনও ভালো হয়েছে। তবে বাজারে ন্যায্য দাম না পাওয়ায় দুশ্চিন্তায় কৃষকরা।


দেশের দ্বিতীয় পেঁয়াজ উৎপাদনকারী জেলা ফরিদপুর। এখানে দিন দিন বেড়েই চলেছে পেঁয়াজের আবাদ। গত বছর পেঁয়াজের দাম ভালো পাওয়ায় এ বছরও কৃষকরা বেশি জমিতে পেঁয়াজ আবাদ করেছেন। মুড়িকাটা, দানা এবং হালি জাতের পেঁয়াজের আবাদ হয়েছে।


এখন নগরকান্দা, সালথা ও ভাঙ্গা উপজেলার কৃষকরা হালি পেঁয়াজ ঘরে তুলতে ব্যস্ত। পেঁয়াজ রোপণ মৌসুমের শুরুতে বীজের দাম বেশি হওয়ায় এ বছর উৎপাদন খরচ বেশি হয়েছে। তবে বাজারে পেঁয়াজের ন্যায্য দাম না পাওয়ায় কৃষকরা অনেকটা দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।


ন্যায্যমূল্য না পাওয়ার বিষয়ে কৃষকরা বলেন, মণপ্রতি ১ হাজার ২০০ টাকা খরচ পড়েছে। তবে আমরা ৬০০-৭০০ টাকা দরে বিক্রি করছি। আমরা তো অর্ধেক দামও পাচ্ছি না।


তাই পেঁয়াজ মৌসুমে সঠিক দাম না পাওয়ার জন্য ভারত থেকে আমদানি করাকে দুষছেন কৃষকরা। তারা বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি না হলে কৃষক পেঁয়াজের ভালো দাম পেত।


এদিকে পেঁয়াজ মৌসুমে সরকার বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি না করলে কৃষকরা ন্যায্যমূল্য পাবেন এবং আবাদ আরও বাড়বে বলে মনে করেন ফরিদপুর কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক ড. মো. হজরত আলী।


উল্লেখ্য, ফরিদপুর জেলায় চলতি বছর প্রায় ৪২ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের আবাদ হয়েছে, যা থেকে প্রায় ৬ লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজ উৎপাদিত হবে। গত বছর ৫ লাখ ৮৯ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ উৎপাদিত হয়েছে।

আরো পড়ুন