শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
যাবজ্জীবন মানে কতো বছর : শুনানি ১৬ মে
নিজস্ব প্রতিবেদক :
০৯ মে, ২০১৯ ১৩:১৫:৪৮
প্রিন্টঅ-অ+


‘যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস’ সংক্রান্ত আপিলের রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা জানেন না, তাদের কতো বছর কারাগারে থাকতে হবে।

আইনজীবীদের মতামত উপস্থাপনের পর কারাগারে কতো দিন থাকতে হবে, তা জানতে পারবেন তারা। এ বিষয়ে আগামী বৃহস্পতিবার (১৬ মে) মামলার শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন ছয় সদস্যের আপিল আদালতকে এ তথ্য দেন সংশ্লিষ্ট মামলার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ। অন্যদিকে আসামির রিভিউ আবেদনের পক্ষে জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন ছাড়াও ছিলেন আইনজীবী শিশির মোহাম্মদ মনির।

শুনানিকালে রিভিউকারী আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন আদালতকে বলেন, বর্তমানে ৫ হাজার ৫৩৭ জন যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি কারাগারে আছে। তবে তারা জানে না, তাদের কতো বছর কারাগারে থাকতে হবে। এক পর্যায়ে সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ আদালতকে বলেন, বিষয়টি দ্রুত সুরাহা হওয়া প্রয়োজন।

পরে যাবজ্জীবন মানে কত বছর সাজা, সে বিষয়ে রিভিউ শুনানির জন্য আগামী বৃহস্পতিবার মামলার শুনানির দিন ধার্য করেন আপিল বিভাগ। ওই দিন আদালতের বন্ধু অ্যামিকাস কিউরি তাদের মতামত তুলে ধরবেন।

প্রসঙ্গত, ২০০৩ সালের ১৫ অক্টোবর একটি হত্যা মামলায় দুই আসামি আতাউর মৃধা ওরফে আতাউর ও আনোয়ার হোসেনকে মৃত্যুদণ্ড দেন বিচারিক আদালত। এরপর ওই রায়ের বিরুদ্ধে আসামিদের আপিল ও মৃত্যুদণ্ড অনুমোদনে ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) শুনানির জন্য হাইকোর্টে আসে। এসব আবেদনের শুনানি নিয়ে ২০০৭ সালের ৩০ অক্টোবর হাইকোর্টের রায়ে দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়।

হাইকোর্টের সে রায়ের বিরুদ্ধে আসামিরা আপিল বিভাগে আপিল আবেদন জানান। ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি আপিল বিভাগের দেয়া রায়ে দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। একইসঙ্গে আদালত যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাসসহ সাত দফা অভিমত দেন। এরপর আপিলের ওই রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করলে এ বিষয়ে বিজ্ঞ আইনজীবীদের মতামত শুনতে অ্যামিকাস কিউরি নিয়োগ দেন আপিল বিভাগ। এছাড়া অ্যামিকাস কিউরি মতামত ও রিভিউ শুনানির জন্য আগামী ১৬ মে দিন ধার্য করেন আপিল আদালত।



আমার বার্তা/০৯ মে ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন