শিরোনাম :

  • করোনা আক্রান্ত দুজনসহ সুপ্রিম কোর্টের তিন আইনজীবী'র মৃত্যু দেশের অর্ধেক অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে আজ ব্রাজিলে করোনায় ৬০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু চেক প্রজাতন্ত্রে ‘করোনা ফেয়ারওয়েল পার্টি’
একাত্তরে কারমাইকেলের ছাত্র ছিলেন আজহার : খন্দকার মাহবুব
নিজস্ব প্রতিবেদক :
৩১ অক্টোবর, ২০১৯ ১০:৫৪:২৯
প্রিন্টঅ-অ+


সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, ১৯৭১ সালের যে সময়ের ঘটনায় এ টি এম আজহারুল ইসলামের মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে, সে সময় তিনি রংপুর কারমাইকেল কলেজের ছাত্র ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা এ টি এম আজহারুল ইসলামের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার পর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (বার) ভবনের সভাপতির কক্ষের সামনে দাঁড়িয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় খন্দকার মাহবুব হোসেন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আজহারুল ইসলামকে ফাঁসি দেয়া হয়েছে। পাকিস্তানি বর্বর বাহিনী যে হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল তারই কারণে তাকে অ্যাবেটর (সহযোগী) হিসেবে সাজা দেয়া হয়েছে।

খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, যারা বাংলাদেশে এই বর্বর হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল তাদেরকে আমরা মাফ করে দিয়েছি। প্রধান আসামিদের মাফ করে দিয়ে অ্যাবেটরদের বিচার করে সাজা দেয়া হচ্ছে।

এটিএম আজহারুল ইসলামের আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন আরও বলেন, লিখিত পাওয়ার পর তারা রায় পুনর্বিবেচনা (রিভিউ) চেয়ে আবেদন করা হবে। আইনের বিধান অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ড দেয়া সঠিক হয়েছে কি-না সেটাই আমরা রিভিউ আবেদনের মাধ্যমে আদালতে তুলে ধরব। তার সাজা বহাল থাকবে কি-না, যারা রিভিউ শুনবেন তাদের ওপর নির্ভর করবে।



আমার বার্তা/৩১ অক্টোবর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন