শিরোনাম :

  • তথ্যমন্ত্রীর বিমান ভারতে মৌমাছির কবলে বৃষ্টি কেড়ে নিলো প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে ভারতের প্রথম টি২০ রাবির ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ শিশু সায়মা হত্যা : তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ৭ অক্টোবর ইমরানের ওপর হামলা : তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ২৩ অক্টোবর
জোডিয়াক পাওয়ারের শেয়ার কিনল কনফিডেন্স সিমেন্ট
নিজস্ব প্রতিবেদক :
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১১:৪১:১০
প্রিন্টঅ-অ+


বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রতিষ্ঠান জোডিয়াক পাওয়ার চিটাগং লিমিটেডের ৫১ শতাংশ শেয়ার কিনে নিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি কনফিডেন্স সিমেন্ট লিমিটেড।

এর মাধ্যমে জোডিয়াক পাওয়ার চিটাগং কনফিডেন্স সিমেন্টের সহযোগী প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। কোম্পানিটির উৎপাদিত সব বিদ্যুৎ বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের কাছে বিক্রি করা হবে।

কনফিডেন্স সিমেন্টের তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

ডিএসই জানিয়েছে, পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কনফিডেন্স সিমেন্ট ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে জোডিয়াক পাওয়ারের ৫১ লাখ শেয়ার কিনেছে। যা গত ৬ আগস্ট থেকে কার্যকর হয়েছে। এর মাধ্যমে কনফিডেন্স সিমেন্ট কোম্পানিটির ৫১ ভাগ শেয়ারের মালিক হয়েছে। ফলে বিদ্যুৎ কোম্পানিটি কনফিডেন্স সিমেন্টের একট সহযোগী প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে।

ডিএসই আর জানিয়েছে, জোডিয়াক পাওয়ারের বাণিজ্যিক উৎপাদন গত ৩০ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে। এর উৎপাদন ক্ষমতা ৫৪ দশমিক ৩৬৩ মেগাওয়াট। প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদিত সব বিদ্যুৎ বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের কাছে বিক্রি করা হচ্ছে।

এর আগে গত ২০ আগস্ট কনফিডেন্স সিমেন্টের সহযোগী প্রতিষ্ঠান কনফিডেন্স পাওয়ার হোল্ডিংস লিমিটেডের 'কনফিডেন্স পাওয়ার রংপুর লিমিটেড'র বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরুর ঘোষণা আসে ডিএসইর মাধ্যমে।

সে সময় জানানো হয়, ১২ আগস্ট থেকে পাওয়ার প্ল্যান্টটির উৎপাদন শুরু হয়েছে। নরওয়ে থেকে এইচএফও ভিত্তিক ১১৩ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন পাওয়ার প্লান্টটির উৎপাদিত পুরো বিদ্যুৎ বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের কাছে বিক্রি করা হবে।

ডিএসই আরও জানায়, কনফিডেন্স পাওয়ার হোল্ডিংস লিমিটেড 'কনফিডেন্স পাওয়ার রংপুর লিমিটেড'র ৯৯ শতাংশের মালিক। আর কনফিডেন্স সিমেন্টের ৪১ শতাংশ মালিকানা রয়েছে।

এর আগে গত এপ্রিলে কনফিডেন্স পাওয়ার হোল্ডিংস লিমিটেডের 'কনফিডেন্স পাওয়ার বগুড়া ইউনিট-২'র বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরুর তথ্য জানিয়েছিল কোম্পানিটি।

জার্মান থেকে এইচএফও ভিত্তিক ১১৩ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন পাওয়ার প্লান্টটি ম্যান ডিজেল ও টুর্বো এসই সরবরাহ করছে। এ কোম্পানিটিরও উৎপাদিত পুরো বিদ্যুৎ বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের কাছে বিক্রি করা হবে।

কনফিডেন্স পাওয়ার হোল্ডিংস লিমিটেড 'কনফিডেন্স পাওয়ার বগুড়া ইউনিট-২'র ৯৯ শতাংশের মালিক। আর কনফিডেন্স সিমেন্টের ৪১ শতাংশ মালিকানা রয়েছে 'কনফিডেন্স পাওয়ার বগুড়া ইউনিট-২'র।

এদিকে ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ) আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে কোম্পানিটি।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ২ টাকা ২০ পয়সা। আগের বছরের একই সময়ে এই মুনাফার পরিমাণ ছিল ২ টাকা ১০ পয়সা।

আর ৯ মাসে (২০১৮ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত) প্রতিষ্ঠানটি শেয়ার প্রতি মুনাফা করেছে ৪ টাকা ৪৭ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৫ টাকা ৯ পয়সা।

এদিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য আগের বছরের তুলনায় কমেছে। চলতি বছরের মার্চ শেষে কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৬৬ টাকা ৭১ পয়সা, যা ২০১৮ সালের জুন শেষে ছিল ৭৬ টাকা।

কোম্পানিটির পরিচালন নগদ প্রবাহের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত শেয়ারপ্রতি নিট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো বা পরিচালন নগদ প্রবাহ দাঁড়িয়েছে ঋণাত্মক ১ টাকা ৩৯ পয়সা। আগের বছরের একই সময়ে শেয়ারপ্রতি নিট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো ছিল ঋণাত্মক ১ টাকা ৩১ পয়সা।



আমার বার্তা/ ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯/রিফাত


আরো পড়ুন