শিরোনাম :

  • এফআইসিএলের চেয়ারম্যান শামীম কবির গ্রেফতার সংসদে এরশাদের জানাজা সম্পন্ন মঈন-রশিদ ধর্মীয় কারণে শিরোপা উদযাপন করলেন নারাজবাড়ীতে ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেবে আদালত
বেরোবিতে কর্মকর্তাদের অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু
নিজস্ব প্রতিবেদক :
১১ মার্চ, ২০১৯ ১৮:২০:০৫
প্রিন্টঅ-অ+


উপাচার্যের একান্ত সচিব আমিনুর রহমানকে অবিলম্বে বদলি, সংস্থাপন শাখা থেকে ডেপুটি রেজিস্ট্রার খন্দকার গোলাম মোস্তফাকে অন্য দফতরে বদলিসহ ১১ দফা দাবিতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি পালন করছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন। সোমবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দফতরের সামনে কর্মবিরতি পালন করছেন কর্মকর্তারা।

সংগঠন সূত্র জানায়, দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- পদোন্নতি এবং আপগ্রেডেশনপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের স্থায়ীকরণ অবিলম্বে সম্পন্ন করা, যেসব কর্মকর্তার পদোন্নতি এবং আপগ্রেডেশন বোর্ড হয়নি তাদের বোর্ড দ্রুত সম্পন্ন করা, যেসব কর্মকর্তার পদবি বদল করা হয়েছে তাদেরকে সপদে ফিরিয়ে আনা, সরকারি নিয়মে পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম প্রস্তুত করা, প্রতিটি দফতরকে নিজস্ব কাজ বুঝিয়ে দিয়ে প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণ নিশ্চিত করা, প্রশাসনিক ভবনে কক্ষ বরাদ্দের নিমিত্তে যে কমিটি গঠিত হয়েছে তাতে জ্যেষ্ঠতা নীতি অবলম্বন করা, ৫৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর বকেয়া বেতন পরিশোধ করা, হয়রানিমূলক বদলিকৃত কর্মকর্তাদের নিজ নিজ দফতরে পুনর্বহাল করা, রেজিস্ট্রার অফিসের স্বন্ত্রতা ও গোপনীয়তা রক্ষা করা এবং রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে অধীনস্থ কর্মকর্তার নজরদারি বন্ধ করা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান  বলেন, উপাচার্যের একান্ত সচিব হিসেবে আমিনুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন দফতরকে কার্যত অকার্যকর করে রেখেছেন। তিনি একাই প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বিভিন্ন দফতরের প্রধানের ভূমিকা পালন করছেন। এছাড়া শতাধিক কমিটিতে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন।

তিনি আরও বলেন, ডেপুটি রেজিস্ট্রার গোলাম মোস্তফা সংস্থাপন শাখার বিভিন্ন ফাইল গোপন করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন। তাই এই দুই কর্মকর্তাকে বদলিসহ ১১ দাবিতে অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন কর্মবিরতি শুরু করেছে।

এ বিষয়ে উপাচার্যের একান্ত সচিব আমিনুর রহমান বলেন, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন সুনির্দিষ্ট কারণ ছাড়াই উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে আমার অপসারণের দাবিতে কর্মবিরতি শুরু করেছে।

এ ব্যাপারে রেজিস্ট্রার আবু হেনা মুস্তাফা কামাল বলেন, বিষয়টি নিয়ে উপাচার্যের সঙ্গে কথা হয়েছে। সমস্যা সমাধানে আরও একটু সময় চেয়েছি কর্মকর্তাদের কাছ থেকে। কিন্তু তারা না মেনে কর্মবিরতি পালন শুরু করেছে। বর্তমানে ক্যাম্পাসে অফিস করার পরিবেশ না থাকায় আমি সেখানে যাচ্ছি না।

সার্বিক বিষয়ে কথা বললে উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করলেও তিনি রিসিভ করেননি।



আমার বার্তা/১১ মার্চ ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন