শিরোনাম :

  • আবুধাবি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী ২০১৮ সালে ২ কোটি ৯০ লাখ শিশুর জন্ম সংঘাতময় এলাকায় : ইউনিসেফ হাতিরঝিলে ভেসে উঠলো মরদেহ পেছাল ব্রাজিল-বাংলাদেশ, অপরিবর্তিত আর্জেন্টিনা কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতির বিরুদ্ধে দুই মামলা
নাসায় যাচ্ছে শাবি শিক্ষার্থীরা
নিজস্ব প্রতিবেদক :
১৯ জুন, ২০১৯ ১৬:৪২:১৬
প্রিন্টঅ-অ+

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা আয়োজিত ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ-২০১৮’ এ ‘বেস্ট ডেটা ইউটিলাইজেশন’ ক্যাটাগরিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়ে নাসায় আমন্ত্রণ পেয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ‘টিম অলিক’।


সেখানে আগামী ২১, ২২ ও ২৩ জুলাই নাসার বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেবেন টিমের সদস্যরা। পাশাপাশি নাসার বিভিন্ন কার্যক্রম ঘুরে দেখারও সুযোগ পাবেন তারা।


নাসার আমন্ত্রণপত্র পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ‘টিম অলিকের’ মেন্টর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বিশ্বপ্রিয় চক্রবর্তী।


তিনি বলেন, গত ২৯ মে ও ১২ জুন নাসা কর্তৃপক্ষ দুটি পৃথক ই-মেইলের মাধ্যমে শাবির ‘টিম অলিককে’ আমন্ত্রণ জানিয়েছে। আগামী ২০ জুলাইয়ের মধ্যে শাবির ‘টিম অলিককে’ নাসায় উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। যেখানে আগামী ২১, ২২ ও ২৩ জুলাই নাসার বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেবেন ‘টিম অলিকের’ সদস্যরা।


‘টিম অলিকের’ সদস্য আবু সাবিক মাহদি বলেন, নাসার পৃথক দুটি ই-মেইলের মাধ্যমে আমন্ত্রণপত্র পেয়েছি আমরা। ই-মেইলে আগামী ২০ জুলাইয়ের মধ্যে আমাদের নাসায় উপস্থিত থাকতে বলা হয়। সেখানে ২১ জুলাই রকেট ফ্যালকন-৯-এর সিআরএস-১৮ মিশনের মহাকাশে উৎক্ষেপণ সরাসরি দেখব আমরা। ২২ ও ২৩ জুলাই নাসার অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন কার্যক্রম ঘুরে দেখব। নাসায় যেতে ভিসাসহ যাবতীয় প্রক্রিয়া ইতোমধ্যে শুরু করেছি আমরা।


গত বছরের শেষের দিকে নাসা আয়োজিত ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ-২০১৮’ এ ‘টিম অলিক’ অংশ নেয়। যেখানে বিশ্বের ৭৯টি দেশ থেকে বাছাইকৃত ২৭২৯টি টিমকে পেছনে ফেলে শীর্ষ চারে স্থান করে নেয় ‘টিম অলিক’। গত ১৬ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী রাউন্ডে ক্যালিফোর্নিয়া, কুয়ালালামপুর আর জাপানের টিমকে পেছনে ফেলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে ‘টিম অলিক’।


‘টিম অলিকের’ মেন্টর হিসেবে রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বিশ্বপ্রিয় চক্রবর্তী।


টিমের সদস্যরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী এসএম রাফি আদনান, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের কাজী মাইনুল ইসলাম ও আবু সাবিক মাহাদি ও একই বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সাব্বির হাসান।


‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ-২০১৮’ প্রতিযোগিতায় বেস্ট ডেটা ইউটিলাইজেশন ক্যাটাগরিতে নাসার দেয়া তথ্য থেকে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি অ্যাপ্লিকেশন ‘লুনার ভিআর’ তৈরি করে শাবির টিম অলিক। এর মাধ্যমে নাসা অ্যাপোলো-১১ মিশনের ল্যান্ডিং এরিয়া ভ্রমণ, চাঁদ থেকে সূর্যগ্রহণ দেখা এবং চাঁদকে একটি স্যাটেলাইটের মাধ্যমে আবর্তন করা এসব সম্পর্কে ভার্চুয়ালি জানা যাবে।


 


আমার বার্তা/ ১৯ জুন ২০১৯/রিফাত

আরো পড়ুন