শিরোনাম :

  • ডি মারিয়া উড়িয়ে দিলেন রিয়ালকে তিন সপ্তাহ পরিকল্পনা, অতঃপর অভিযানের গ্রিন সিগন্যাল কোহলির ব্যাটে সহজ জয় ভারতের বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদুর বাড়িতে হামলা জাবি উপাচার্যকে পদত্যাগের জন্য আল্টেমেটাম
মালয়েশিয়ার জেলে বন্দী ১৫৯৪ বাংলাদেশি প্রবাসী
মালয়েশিয়া প্রতিনিধিঃ
২৬ জুন, ২০১৯ ১৯:১৬:২০
প্রিন্টঅ-অ+


মালয়েশিয়ার বিভিন্ন জেলখানায় বন্দী হয়ে রয়েছেন ১ হাজার ৫৯৪ জন বাংলাদেশি। অভিবাসীদের জন্যে দেশটির ১৪টি জেলখানায় এই সংখ্যক বাংলাদেশি আটক রয়েছেন। মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক খায়রুল জায়মি দাউদ শনিবার (২২ জুন) এ তথ্য জানিয়েছেন। খায়রুল জায়মি দাউদ বলেন, আটক থাকা অভিবাসীদের পেছনে মাসে প্রায় ৭৪ কোটি টাকা ব্যয় হয়।



প্রতিজন বন্দীর পেছনে দিনে প্রায় ২৫০ টাকা ব্যয় করা হয়। মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য যে নিরাপদ খাবার, সেটি নিশ্চিত করা হয়। তিনি বলেন, দেশব্যাপী ইমিগ্রেশন বিভাগের ১৪টি জেলখানা রয়েছে। যেখানে অবৈধ অভিবাসীদের এক বা দুই মাসের জন্যে রাখা হয়। অভিবাসীদের দেশের কূটনৈতিক মিশন যখন সঠিক তথ্য নিয়ে আসেন, তখন নিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় তাদের ফেরত পাঠানো হয়।



মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের এক অনুষ্ঠানে অতিথির বক্তব্যে খায়রুল জায়মি দাউদ জানান, বন্দী অভিবাসীদের দেশ থেকে প্রয়োজনীয় উপাত্ত আরো দ্রুত আনা গেলে এই খরচ আরো কমিয়ে আনা যেত। দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক আরো বলেন, গত ১৮ জুন, ২০১৯ এর হিসাব অনুযায়ী মালয়েশিয়ার জেলখানায় ৯ হাজার ৬৫৪ জন অভিবাসী রয়েছেন। যার মধ্যে ৭ হাজার ৬৫০ জন পুরুষ, ১ হাজার ৬৬৪ জন নারী এবং বাকিরা শিশু।



বন্দীদের মধ্যে ৩ হাজার ৭৬৭ ইন্দোনেশীয়, মিয়ানমারের ২ হাজার ১০৫ জন এবং ১ হাজার ৫৯৪ জন বাংলাদেশি। এছাড়াও ভারতের ৫২৫ জন, ভিয়েতনামের ২৯৪ জন, পাকিস্তানের ২৬৩ জন, থাইল্যান্ডের ২২৬ জন, ফিলিপাইনের ২২২ জন, নেপালের ১৯৩ জন, নাইজেরিয়ার ১৫০ জন এবং ৩১৫ জন অন্যান্য দেশের।



মহাপরিচালক জানান, ১৮ জুন পর্যন্ত ইমিগ্রেশন বিভাগ ৮ হাজার ২৭৭টি অভিযানের মাধ্যমে ১ লাখ ৩ হাজার ২২৪ জনের কাগজপত্র নিরীক্ষা করেছে। তিনি আরো জানান, অভিবাসী জেলখানাগুলোর মধ্যে কুয়ালালামপুরের বুকিত জলিল, সেপাংয়ে কেএলআইএ, নেগেরি সেমবিলানের লেংগেং এবং পুলাউ পিনাংয়ের জুরুতে স্থানের তুলনায় অভিবাসীদের সংখ্যা বেশি রয়েছে। এই সংকট দূর করতে অভিবাসীদের দ্রুত দেশে পাঠানোর ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে। আপাতত আশে পাশের জেলখানাতেও স্থানান্তর করা হতে পারে।


আরো পড়ুন