শিরোনাম :

  • আজ শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী বৈরুতে জোড়া বিস্ফোরণে নিহত ৭৮, আহত প্রায় ৪০০০ লেবাননে ৩ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা উল্কাপিণ্ড থেকে মিলবে ৫ হাজার কোটি টাকা, অতঃপর...
রায়হান কবিরের মুক্তি দাবি ২১ সংগঠনের
আমার বার্তা ডেস্ক:
২৬ জুলাই, ২০২০ ১৪:৫০:২৮
প্রিন্টঅ-অ+


মালয়েশিয়ার অভিবাসী কর্মীদের ওপর চলা নিপীড়নমূলক আচরণ নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল-জাজিরায় সম্প্রতি একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রচার করা হয়। সেই প্রতিবেদনে সাক্ষাৎকার দেয়ার কারণে বাংলাদেশি তরুণ রায়হান কবিরকে গ্রেফতার করেছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এই গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশের অভিবাসন খাতের ২১ টি সংগঠন। এই ব্যাপারে মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশন, ঢাকায় পররাষ্ট্র ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়সহ আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে সক্রিয় হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে সংগঠনগুলো। শনিবার ( ২৫ জুলাই ) ২১ টি সংগঠনের একটি যৌথ বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়।



বিবৃতি প্রদানকারী সংগঠনগুলো হলো, রামরু, ওয়ারবি, ব্র‍্যাক, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ), ওকাপ, বিএনসকে, আইআইডি, আসক, বমসা, বাসুগ, ইনাফি, কর্মজীবী নারী, বিএনপিএস, ডেভকম, ইমা, আওয়াজ ফাউন্ডেশন, রাইটস যশোর, বিলস, বাস্তব, ফিল্মস ফর পিস ফাউন্ডেশন এবং মাইগ্রেশ নিউজ।



বিবৃতিতে বলা হয়, “গত ৩ জুলাই ‘লকডআপ ইন মালয়েশিয়ান লকডাউন-১০১ ইস্ট-শীর্ষক একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে আল-জাজিরা। এতে দেখানো হয় মালয়েশিয়ার সরকার কন্ট্রোল অর্ডার (এমসিও) এর মাধ্যমে অভিবাসীদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করেছে। আল-জাজিরার প্রতিবেদনে অভিবাসীদের প্রতি মালয়েশিয়ায় নিপীড়নের ছবি উঠে এসেছে সেটা নিন্দনীয় ও গভীর উদ্বেগের।  ১১ জুলাই এক বিবৃতিতে মালয়েশিয়ার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি এই ধরনের অভিযোগগুলো তদন্তের আহবান জানানো হয়।”



বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করলাম, এই ঘটনার পর সাংবাদিকদের ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করলো মালয়েশিয়া। আল-জাজিরার প্রতিবেদনে সাক্ষাৎকার দেওয়ায় বাংলাদেশী তরুণ মোঃ রায়হান কবিরের (২৫) ব্যক্তিগত তথ্য চেয়ে সমনজারি ও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেয় প্রশাসন। আমরা পরিষ্কার করে বলতে চাই, গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়া কোনো অন্যায় নয়। আর রায়হান কোনো অপরাধ করেনি। অথচ এমন ভাবে মালয়েশিয়া বিজ্ঞপ্তি দিয়ে তাকে খুঁজছে যেন সে বড় অপরাধী। এর মধ্যেই শুক্রবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় মালয়েশিয়ার পুলিশ। আমরা রায়হানের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন।”



বাংলাদেশের ২১ সংগঠনের বলছে, “রায়হানের বাড়ি বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জ। তার পরিবার ও স্থানীয়রা বলছেন রায়হান ছোটবেলা থেকেই যে কোন অন্যায় দেখলে প্রতিবাদ করতেন। রায়হান প্রবাসীদের কণ্ঠস্বর। আমরা এই প্রতিবাদী তরুণের মুক্তি চাই। মালয়েশিয়ার সব মানবাধিকার সংস্থা আইনজীবী, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মীদের আমরা এ বিষয়ে সরব হওয়ার অনুরোধ করছি। এই ব্যাপারে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশনকে তৎপর হয়ে রায়হান কবিরের নিরাপত্তা ও আইনি সহায়তা দেওয়াসহ যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করছি।”

 



আমার বার্তা/ ২৬ জুলাই,২০২০/এসএফসি


আরো পড়ুন