শিরোনাম :

  • ডেমু ট্রেন আর নয় : প্রধানমন্ত্রী ডেঙ্গু আক্রান্ত সিংহভাগই শিশু ওসি মোয়াজ্জেমের অভিযোগ গঠন শুনানি আজ এইচএসসিতে পাসের হার ৭৩.৯৩%মক্কায় আরও ৩ বাংলাদেশী হজযাত্রীর মৃত্যু
জায়রা ওয়াসিমকে তিরস্কার করে রাভিনা অনুতপ্ত
বিনোদন ডেস্ক :
০৪ জুলাই, ২০১৯ ১০:১৬:৩০
প্রিন্টঅ-অ+


ধর্মবিশ্বাসে আঘাত আসছে এবং ঈমান নষ্ট হয়ে যাচ্ছে এমন যুক্তি দিয়ে অভিনয় ছাড়লেন ১৮ বছর বয়সী মুসলিম অভিনেত্রী, দঙ্গল গার্ল জায়রা ওয়াসিম। এ যুক্তিতে তার অভিনয় ছাড়া নিয়ে বলিউডে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। এক টুইটে তাকে তিরস্কার করেছিলেন অভিনেত্রী রাভিনা ট্যান্ডন। তিনি লিখেছিলেন, ‘জায়রা অকৃতজ্ঞ হলে তাতে কোনো কিছু যায় আসে না। জায়রা যে মত প্রকাশ করেছেন, তা তার নিজের কাছেই রাখা উচিত ছিল।’

এরপর অনুতপ্ত হয়ে রাভিনা ট্যান্ডন তার এই টুইট মুছে ফেলেন। করেন নতুন টুইট, যাতে জায়রার উদ্দেশ্যে তিনি লিখেছেন, ‘ওকে জোর করে কেউ এ টুইই লিখিয়ে থাকলে ওর জন্য খারাপ লাগছে। এ প্রজন্মের কাছে ও অনুপ্রেরণা। প্রার্থনা করব ও যেন শক্ত থাকতে পারে। সেদিনের টুইটের জন্য আমি অনুতপ্ত। সেটা মুছে ফেলছি।

রাভিনা আরও বলেছেন, ‘ওর এ সিদ্ধান্ত সিনেমাপ্রিয় মানুষ হিসেবে আমাকে কষ্ট দিয়েছিল। তাই শব্দগুলো বোধহয় কর্কশ হয়ে গিয়েছিল।

২০১৬ সালে আমির খানের সঙ্গে ‘দঙ্গল’ ছবিতে অভিনয় করেন জায়রা ওয়াসিম। এতে অভিনয় করে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড, ন্যাশনাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড-ন্যাশনাল চাইল্ড অ্যাওয়ার্ড ফর একসেপশনাল অ্যাচিভমেন্ট পান।

গত মার্চে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সঙ্গে তার ছবি ‘দ্য স্কাই ইন পিঙ্ক’-এর শুটিংও শেষ হয়। ক্যারিয়ারের এমন টার্নিং পয়েন্টে এসে অভিনয় ছাড়ার ঘোষণা দিলেন তিনি।

অভিনয় ছাড়ার কারণ জানিয়ে গত রোববার টুইটারে জায়রা ওয়াসিম লিখেন, ‘পাঁচ বছর আগে নেয়া সিদ্ধান্ত আমার জীবনকে বদলে দিয়েছিল। বলিউডে পা রাখার পর তুমুল জনপ্রিয়তা পাই। কিন্তু এই জগৎটা আমাকে ক্রমশ অবমাননার দিকে ঠেলে দিয়েছে, ক্রমশ অসচেতনভাবে আমি আমার ঈমান (বিশ্বাস) থেকে বেরিয়ে এসেছি।

‘কারণ, আমি এমন একটা পরিবেশে কাজ করতাম, যা ক্রমাগত আমার ঈমানের মাঝে বাধা হয়ে দাঁড়াত, ধর্মের সঙ্গে আমার সম্পর্ক বিপন্ন হয়ে পড়েছিল।’

জায়রা তার পোস্টে আরও বলেন, ‘কোরআনের ঐশ্বরিক জ্ঞানের মধ্যে আমি তৃপ্তি এবং শান্তি খুঁজে পেয়েছি। প্রকৃতপক্ষে হৃদয় তার সৃষ্টিকর্তার জ্ঞান, তার গুণাবলি, তার করুণা এবং তার আদেশের জ্ঞান অর্জনে শান্তি পায়। আমি মনে করি- খ্যাতি, সম্পদ যে পর্যায়ে পৌঁছে যাক না কেন, তাতে যেন কখনও শান্তি এবং নিজের বিশ্বাস না হারিয়ে যায়।’



আমার বার্তা/০৪ জুলাই ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন