শিরোনাম :

  • আজ পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ যে চ্যানেলে দেখা যাবে বাংলাদেশ-ভারত টেস্ট ম্যাচ সৌদি অ্যারামকোতে প্রথমবারের মতো নারী প্রধান ইসরায়েলি হামলায় গাজায় রক্তবন্যা, ২৪ ফিলিস্তিনি নিহত
যে কারণে টিকে আছে নিক-প্রিয়াঙ্কার সংসার
বিনোদন ডেস্ক :
০২ নভেম্বর, ২০১৯ ১১:১২:৫২
প্রিন্টঅ-অ+


বেশ জাকজমক আয়োজনে গত বছর বিয়ে করেছেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও তরুণ মার্কিন গায়ক নিক জোনাস। বিয়ের তিন মাস পরেই তাদের সংসার ভেঙে যাচ্ছে বলে গুজব ওঠে। আমেরিকার ‘ওকে’ ম্যাগাজিনের এমন সংবাদে ভীষণ কষ্ট পেয়েছিলেন

‘প্রিয়াঙ্কা-নিক’ এর ভক্তরা।

পরে প্রিয়াঙ্কা জানান, এই খবরটি ছিল মিথ্যে। তাদের ভালোবাসার সুতোই বোনা সংসার ভালোই আছে। নিকের সঙ্গে অনেক সুখী জীবন কাটাচ্ছেন তিনি। মাঝে মধ্যে তাদের একসঙ্গে সময় কাটানোর বিশেষ ছবিও প্রকাশ করেছেন। সব মিলিয়ে বেশ কাটছে এই দম্পতির দিনগুলো।

এবার স্বামী-সংসার টিকিয়ে রাখার গোপন সূত্র জানিয়ে দিলেন প্রিয়াঙ্কা। ভালো থাকতে নিক-প্রিয়াঙ্কা দম্পতি যে বিষয়গুলো মেনে চলেন সেগুলোই তুলে ধরলেন ভক্তদের সামনে। চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার নিয়ে প্রচুর ব্যস্ত থাকতে হয় প্রিয়াঙ্কাকে। অন্যদিকে সংগীত নিয়ে ব্যস্ত থাকেন নিক। এত ব্যস্ততার মধ্যে তারা কীভাবে একে অপরের খেয়াল রাখেন!

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বলেন, ‘পরিবারের যত্ন নেওয়ার ব্যাপারটা খুব কঠিন। তবে আমি ভীষণ খুশি কারণ উনার মতো একজন মানুষকে বিয়ে করেছি। যিনি আমার উচ্চাশা ও আমার কাজের প্রতি চেষ্টার ব্যাপারটা বোঝেন। নিক বলেছে ও আমার প্রেমে পড়েছে। সত্যি কথাটা হলো পেশাগত জীবন নিয়ে ব্যস্ত থাকি আমরা। ক্যারিয়ারকে এগিয়ে নিতে দু’জনেই অনেক পরিশ্রম করি। আমরা সব সময় একে অন্যকে সমর্থন করি।’

প্রিয়াঙ্কা আরও বলেন, ‘কোনো সম্পর্ক টিকে রাখার সব চেয়ে বড় ব্যপারটি হলো একসঙ্গে অনেকটা সময় কাটানো। পৃথিবীর দুই প্রান্তে থাকা দম্পতিদের ক্ষেত্রেও এটা সত্যি। একটা জিনিস আমরা সব সময় মেনে চলি। নিক ও আমি কখনই ৩ সপ্তাহর বেশি একে অপরকে না দেখে থাকি। পৃথিবীর যেখানেই থাকি না কেন আমরা উভয়ের সংস্পর্শে থাকি। ভিডিও কলে কথা বলি। সব সময় একে অপরকে জড়িয়ে রাখার চেষ্টা করি।’

প্রিয়াঙ্কা বললেন ‘কর্মজীবন ও ব্যক্তিগত জীবনের মধ্যে ভারসাম্য রাখা খুবই জরুরি। স্বামী-স্ত্রী দু'জনেই চাকরি করেন এমন পরিবার অনেক আছে। আমরা রোজ আমাদের সম্পর্ককে চাপে ফেলি। কিন্তু এটা ঠিক নয়। যতই কাজ থাকুক না কেন পরিবারের সঙ্গে সম্পর্ক না রাখতে পারাটা বড় ধরণের ব্যর্থতা।’



আমার বার্তা/০২ নভেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন