শিরোনাম :

  • বাংলাদেশি হজকর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত এপ্রিলেই আসছে ঘূর্ণিঝড়-বন্যা ও তীব্র তাপপ্রবাহ লন্ডনের হাসপাতালে অক্সিজেন সংকটের আশঙ্কা, আতঙ্কে করোনা রোগীরা পরজীবীনাশক ওষুধে মাত্র ৪৮ ঘণ্টায় মরবে করোনা
ওরা করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর: আসিফ আকবর
বিনোদন ডেস্ক :
১০ মার্চ, ২০২০ ১০:৫১:৪৩
প্রিন্টঅ-অ+


করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সারা দুনিয়া। বিশ্বজুড়ে এখন আতঙ্কের নাম এই ভাইরাসটি। চীন থেকে ক্রমেই ছড়িয়ে পড়েছে নানা দেশে। সম্প্রতি বাংলাদেশেও তিনজন শনাক্ত হয়েছে যারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।

এ খবর প্রকাশের পর থেকেই সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে আতঙ্ক। সেইসঙ্গে ছড়াচ্ছে গুজবও। এ ব্যাপারে সবাইকে সচেতন থাকতে পরামর্শ দিচ্ছে সরকারসহ বিভিন্ন সামাজিক সংস্থা। মুখ খুলছেন নানা অঙ্গনের তারকারাও।

সোমবার ৯ মার্চ করোনাভাইরাস নিয়ে সবাইকে সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়ে দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন নন্দিত গায়ক আসিফ আকবর। বাংলা গানের যুবরাজখ্যাত এ তারকা তার স্ট্যাটাসে করোনা ছাড়াও ডেঙ্গু, গানের কপিরাইট সমস্যাসহ নানা বিষয় তুলে ধরেন।

তিনি লিখেছেন, ‌‘ঢাকার বাতাসে যে পরিমাণ সীসা আর জীবাণু ঘুর্ণায়মান তাতে করোনাভাইরাস খুব একটা সুবিধা করতে পারবে বলে মনে হয় না। এখন পর্যন্ত বেশি আক্রান্ত দেশগুলোর বেশিরভাগই অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছল। কতরকম ভাইরাস এদেশে এল গেল একমাত্র ডেঙ্গু ছাড়া সব ব্যর্থ। পৃথিবীর সবচেয়ে সফল হত্যাকারী হচ্ছে স্ত্রী মশা’।

‘এদের কারণে সৃষ্টির এ পর্যন্ত পৃথিবীর অর্ধেক মানুষ মারা গেছে। গরিব এবং অপরিচ্ছন্ন দেশে যেমন বরফ পড়ে না, ভাইরাসগুলোরও নিশ্চয়ই এমন কিছু ক্রাইটেরিয়া আছে। নইলে এসব ভাইরাসের কারণে এতদিনে মহামারি হতে পারত। ভিডিওতে দেখলাম এক দরিদ্র মহিলা করোলা খাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন, তিনি ভেবেছেন এটাই করোনা। এদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে জনপ্রিয় করোনা বিয়ারের ব্যবসায় ধ্বস নেমেছে’।

আসিফ বাংলাদেশে মৃত্যুর প্রসঙ্গে বলেন, ‘বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনা, লঞ্চডুবি, নৌকাডুবি, খুনোখুনি, আত্মহত্যা, ক্রসফায়ার কিংবা ধর্ষণের পর হত্যায় যে পরিমাণ মানুষ প্রতিদিন মারা যায়, সেই তুলনায় করোনা কোনো ব্যাপার হতে পারে না। তবে ঝোঁপ বুঝে কোপ মারা অসভ্য ব্যবসায়ীগুলো সুযোগমত মাস্কের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে, বাংলাদেশের এই পশু কালচারটা সবচেয়ে বড় ভাইরাস। এদের শূলে চড়ানো উচিত প্রকাশ্যে।

‘কোথায় যেন শুনেছিলাম এদেশে মুখোশধারী মানুষের সংখ্যা বেশি, মাস্ক লাগবে না। হুজুগে বেকার জাতি করোনা ছড়িয়ে দিয়েছে ফেসবুকে। এখন ফেসবুক চালাতে গেলেই মনে হয় মাস্কটা দরকার’।

নিজের ব্যস্ততা ও কপিরাইট ইস্যু নিয়ে আসিফ লিখেছেন, ‘কাজতো থেমে নেই। হালকা অসুস্থ শরীরটা নিয়ে গেলাম কপিরাইট অফিসে। এখন নতুন গান করার চেয়ে পুরনো গান নিয়েই যুদ্ধ চলছে বেশি। এক আশ্রিত বেইমান গীতিকারের কারণে যেতে হলো আজ। গিয়ে দেখি অসভ্যটা অঙ্গীকারনামায় মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে তার লেখা গানের কপিরাইট চেয়েছে। ব্যাপারটা ধরে ফেলেছি, খুব দ্রুত বিস্তারিত ঘটনা জাতির সামনে চলে আসবে, আপাতত মামলার স্বার্থে ডিসক্লোজ করছি না’।

‘চোরটা মরহুম আইয়ুব বাচ্চু ভাইকেও ছাড়েনি। দল যতই শক্তিশালি হোক না কেন তাদের মোনাফেকি ধরা পড়বেই, শাস্তিও পেতে হবে। এই গীতিকারেরও করোনা হবে না। কারণ এগুলা ইন্ডাস্ট্রি এবং সমাজের আরও পচা গনোরিয়া রোগী। আস্তিনের সাপগুলো সমাজের বিভিন্ন সেক্টরে ছড়িয়ে পড়েছে তেলবাজির মাধ্যমে, এরা করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর। সুতরাং আসুন করোনা জুজু থেকে বের হয়ে রাস্তাঘাটে সাবধানে চলি। পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকি, যেখানে সেখানে থুথু না ফেলি। ভালোবাসা অবিরাম’।



আমার বার্তা/১০ মার্চ ২০২০/জহির


আরো পড়ুন