শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
জীবনযুদ্ধে ক্ষতবিক্ষত দুই যোদ্ধা!
আমার বার্তা ডেস্ক :
৩১ মার্চ, ২০১৯ ১০:৫১:৫৪
প্রিন্টঅ-অ+


শিকারি পাখি বাজ। সাংঘাতিক হিংস্র। কর্কশ কণ্ঠে ডেকে প্রতিপক্ষকে ভয় পাইয়ে দেয়। তবে এবার দেখা গেল-নাগপাশে ছটফট করছে বিশাল বাজের দেহ। ক্রমে তাকে পেঁচিয়ে ধরছে প্রতিদ্বন্দ্বী ব়্যাট স্নেক। আর শিকারী বাজ খুঁজছে একটা সুযোগ। তীক্ষ্ণ নখের আঁচড়ে ক্ষতবিক্ষত করছে সাপটাকে।

এক সময় মিলে গেল সুযোগ- আঁকশির মতো নখ দিয়ে সাপের দেহ খুবলে নেওয়ার ভয়ঙ্কর চাপ দিল পাখিটা। একেই বলে মরণচেষ্টা! যদিও দু'পক্ষই মরণমুখে।

ঘটনাটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। টেক্সাসের একটি বিদ্যালয়ের পড়ুয়া ঘুরতে গিয়েছিল। ঘোরার মাঝেই তারা জঙ্গলে দেখতে পায় এই অদম্য লড়াইয়ের মুহূর্ত। একটি শিকারী বাজ ও ব়্যাট স্নেক পরস্পরকে জাপটে নিয়েছে৷ তারা লড়াই করছে অরণ্যের প্রাচীন সত্যকে প্রতিষ্ঠা করার। এই লড়াইয়ে হয় জয় নয় মৃত্যু।

স্তম্ভিত হয়ে সবাই সেই লড়াই দেখে৷ কেউ কেউ সেই ছবি ক্যামেরা বা মোবাইলে বন্দি করে৷ তারপর যা হওয়ার তাই হয়েছে। ভয়ঙ্কর এক জীবন যুদ্ধে ক্ষতবিক্ষত দুই যোদ্ধার ছবি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে। ঘটনাস্থল DFW Urban Wildlif সেন্টার।

এদিকে, টেক্সাস বনবিভাগের কর্মীরা জানিয়েছেন, প্রথম দিকে পড়ুয়ারা মনে করেছিল বাজ আর সাপ দুটোই মৃত। কিন্তু পরে খতিয়ে দেখা যায় দুই যোদ্ধা একে অপরকে আঁকড়ে ধরে মেরে ফেলতে চাইছে। পরে এটাকেই বনবিভাগ জীবন-মৃত্যুর লড়াই হিসেবে চিহ্নিত করেছে। তাদের ভাষায় “life-or-death battle”.

ধারণা করা হচ্ছে, শিকারী বাজ তার স্বভাব মতো উপর থেকে ছোঁ মেরে এসে মাটিতে থাকা সাপটিকে তুলে নিতে চেয়েছিল। কিন্ত কোনও কারণে সেই চেষ্টা সফল হয়নি। তারপরেই বাগে পেয়ে যায় ব়্যাট স্নেক। সে জড়িয়ে ধরে বাজকে। শুরু হয় মল্লযুদ্ধ। যে যুদ্ধের কোন ইতি হয়নি। দু'জনকেই উদ্ধার করেছে দেশটির বনবিভাগ।



আমার বার্তা/৩১ মার্চ ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন