শিরোনাম :

  • আজ সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী কারওয়ান বাজারের কলার আড়তের আগুন নিয়ন্ত্রণে করোনা মোকাবিলায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ২৩ কোটি টাকার বরাদ্দ যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রেকর্ড, একদিনে প্রাণ গেল ১২২৪ জনের
শীতে টক দই খাবেন যে কারণে
আমার বার্তা ডেস্ক :
২৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১১:৩৫:২৬
প্রিন্টঅ-অ+


সপ্তাহখানেক ধরে শীত বেশ জাঁকিয়ে পড়েছে। এসময় নানা অসুখ-বিসুখ দেখা দেওয়া অস্বাভাবিক নয়। তাই গরম কাপড়ে শীত নিবারণের পাশাপাশি নজর দিতে হবে খাবারের দিকেও। কারণ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত না হলে সহজেই আক্রান্ত হওয়ার ভয় থাকে। শীতের সময়ে ভাজাপোড়া কিংবা মুখরোচক নানা খাবার খাওয়ার পরিমাণ বেড়ে যায়। মিষ্টি স্বাদের পিঠা কিংবা ঝাল ঝাল পাকোড়া- বাদ যায় না কিছুই।

মুখরোচক খাবার কম-বেশি খান, তবে নিয়মিতভাবে এমন খাবার খেতেই হবে যাতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত হয়। সেই কারণেই শীতকালেও রোজ টকদই খেতে ভুলবেন না। সুপারফুড টকদই শুধু পেট ঠান্ডা করে, তাই নয়। তার সঙ্গে শরীরে প্রোটিন ও ক্যালসিয়াম যোগ করে। প্রোবায়োটিক দই হজম ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

দইয়ের মধ্যে রয়েছে ক্যালসিয়াম, যা হাড় শক্ত করতে সাহায্য করে। অনেকে গরমে দই খেলেও শীতাকালে দইয়ের বাটি দূরে সরিয়ে রাখেন।

দই দুধের থেকে তাড়াতাড়ি হজম হয়। যারা দুধ খেতে পারেন না, তারা প্রতিদিন ৪/৫ চামচ টক দই খেতে পারেন।

শীতকালে আমাদের ত্বক রুক্ষ হয়ে যায়। দই ত্বকে আর্দ্রতা জোগায়। তাই খাওয়া ছাড়াও টকদই ফেসপ্যাক হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। পাশাপাশি প্রতিদিন ২-৩ চামচ দই খান। ভেতর থেকে ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

দই সব বয়সীর জন্য ভালো। একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যারা প্রতিদিন দই খান, তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি।

শীতের দুপুরে টকদই খেতে পারেন। শীতকালে অনেকেই শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ভোগেন। নিয়মিত টকদই খেলে তারাও উপকার পাবেন।



আমার বার্তা/২৫ ডিসেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন