শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
দুধ না খেয়েও
ক্যালসিয়ামের চাহিদা মিটাবে যে খাবারগুলো
২৬ জুন, ২০২১ ১২:১৫:১৩
প্রিন্টঅ-অ+

প্রতিদিন আপনার শিশুকে এক গ্লাস দুধ খাওয়ান। কারণ, বাড়ন্ত বয়সে শিশুদের হাড় ও দাঁত গঠনে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম প্রয়োজন হয়। তবে অনেক শিশু এবং পূর্ণবয়স্ক মানুষ দুধ পান করতে পছন্দ করেন না। 


এর ফলে তাদের প্রতিদিন গ্রহণ করা খাদ্য উপাদানের মাঝে ক্যালসিয়ামের অভাব দেখা দেয়। এ ছাড়া, দুধে থাকা ল্যাকটোজ অনেকেই সহ্য করতে পারেন না।


অর্থাৎ দুধ পানের সাথে সাথেই বিভিন্ন ধরনের শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে থাকে। এই সমস্যাকে বলা হয়ে থাকে ল্যাকটোজ ইন্টোলারেন্স। কারণ, তাদের পাকস্থলী দুধের ল্যাকটোজকে হজম করতে পারে না। যাদের এমন সমস্যা রয়েছে তাদের শারীরিক গঠনের জন্য, হাড় ও দাঁতের সুরক্ষার জন্য ক্যালসিয়ামের প্রয়োজন রয়েছে। বেশ কিছু প্রাকৃতিক খাদ্য উপাদান থেকেও শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ক্যালসিয়াম গ্রহণ করা সম্ভব। যেমন-


ওটস


স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাদ্য হিসেবে বহু আগে থেকেই ওটসের খ্যাতি রয়েছে। ওটসে রয়েছে উচ্চমাত্রায় ক্যালসিয়াম, আঁশ, ভিটামিন-বি এবং শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য গুরুতপূর্ণ পুষ্টি উপাদান। ডায়াটেশিয়ানদের মতে, শুধু আধা কাপ পরিমাণ ওটসে রয়েছে ২০০ মিলিগ্রাম পরিমাণ ক্যালসিয়াম। যেটা অনেকটাই দুধের সমপরিমাণ। সাধারণত ওটস সয়ামিল্ক অথবা আমন্ডমিল্কের সাথে খাওয়া হয়। তবে রান্না করে অথবা অন্যভাবেও ওটস খাওয়া যেতে পারে।


কাঠবাদাম


বিভিন্ন ধরনের বাদামের মাঝে কাঠবাদাম সকলের কাছেই বেশ প্রিয়। গবেষণা দেখা গেছে, এক কাপের তিন-চতুর্থাংশ পরিমাণ কাঠবাদামে রয়েছে ৩২০ মিলিগ্রাম পরিমাণ ক্যালসিয়াম, যা দুধে থাকা ক্যালসিয়ামের চাহিদা খুব সহজেই পূরণ করতে পারে। এ ছাড়াও কাঠবাদাম চুল ও ত্বকের স্বাস্থ্য রক্ষা করতে এবং মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে থাকে।


ছোলা


ছোলা আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয় ও পরিচিত একটা খাদ্য। রান্না করে, ভেজে অথবা সিদ্ধ করে ছোলা খেতে দারুণ ভালো লাগে। দেখা গেছে যে, দেড় কাপ পরিমাণ ছোলাতে রয়েছে ৩১৫ মিলিগ্রাম পরিমাণ ক্যালসিয়াম এবং প্রচুর পরিমাণে আঁশ। একইসাথে রয়েছে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় প্রোটিন। যে কারণে ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণের জন্য ছোলা হলো সবচেয়ে কার্যকর একটি খাদ্য।


সবুজ শাক-সবজি


যেকোনো ডাক্তার উপদেশ দিয়ে থাকেন, সুস্বাস্থ্যের জন্য সবসময় তাজা ও সবুজ শাক-সবজি গ্রহণ করার জন্য। বিভিন্ন ধরনের শাকের মাঝে পালং শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম। প্রায় দুই কাপ পরিমাণ পালং শাকে রয়েছে ৩০০-৩৫০ মিলিগ্রাম পরিমাণ ক্যালসিয়াম। বিভিন্ন ধরনের সুস্বাদু সবজির স্মুদি যে কারণে পান করা যাবে ইচ্ছামত।


কমলালেবু


সকল উপাদানের মধ্যে কমলালেবুর নাম পড়ে নিশ্চয় খুশি হচ্ছেন! প্রাকৃতিক এই চমৎকার ফল শুধু খেতেই দারুণ না, এর পুষ্টিগুণও দারুণ। ভিটামিন-সি ও ক্যালসিয়াম পূর্ণ কমলালেবু যেকোনে সময়েই খাওয়া যেতে পারে। একটি কমলালেবুতে রয়েছে ৬৫ মিলিগ্রাম পরিমাণ ক্যালসিয়াম।


শুকনো ডুমুর


সকালের নাস্তায় অথবা বিকালের হালকা খাবারে শুকনো ডুমুর ফল খাওয়া যেতে পারে নির্দ্বিধায়। দেড় কাপ পরিমাণ শুকনো ডুমুরে রয়েছে ৩২০ মিলিগ্রাম পরিমাণ ক্যালসিয়াম। একইসাথে এতে রয়েছে অনেক উচ্চমাত্রায় স্বাস্থ্যকর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস।


পনির


পনির খেতে কে না ভালোভাসে! বিভিন্ন খাদ্য তৈরিতে পনির একটি আবশ্যিক উপাদান। জেনে খুশি হবেন, এক কাপের তিন-চতুর্থাংশ পরিমাণ পনিরে রয়েছে ৩০০-৩৮০ মিলিগ্রাম পরিমাণ ক্যালসিয়াম এবং ২১ গ্রাম পরিমাণ প্রোটিন, যা শিশু থেকে পূর্ণবয়স্ক যে কারোর জন্য উপকারী খাদ্য।


আমার বার্তা/ এইচ এইচ এন

আরো পড়ুন