শিরোনাম :

  • প্রথম ওভারেই নাসুমের আঘাত করোনায় একদিনে পুরুষের চেয়ে নারীর মৃত্যু দ্বিগুণ নাঈম-মুশফিকের অর্ধশতকে ১৭১ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর‘তিস্তায় মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে
ডেঙ্গুর ভালো চিকিৎসা হলি ফ্যামিলিতে, আছে অভিযোগও
২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১১:০৫:২৬
প্রিন্টঅ-অ+


রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গুজ্বর নিয়ে চিকিৎসাধীন ছিল ছয় বছরের শিশু। অবস্থা খারাপের দিকে যাওয়ায় শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সেখান থেকে মগবাজারের হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে শিশুটি হাসপাতালটির এমএম ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

সেখানে ওই শিশুর মায়ের সঙ্গে কথা হয় জাগো নিউজের। তিনি বলেন, ছেলের ডেঙ্গু ধরা পড়লে অনেকেই হলি ফ্যামিলিতে ভর্তি করানোর পরামর্শ দেন। শুনেছি এখানে ডেঙ্গুজ্বরের ভালো চিকিৎসা হয়, তাই ছেলেকে এখানে ভর্তি করেছি।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) হাসপাতাল ঘুরে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত কয়েকজন শিশুর অভিভাবকের সঙ্গে কথা হয়। তারা জানান, হলি ফ্যামিলিতে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্তদের ভালো চিকিৎসা হয়। তবে অনেকে হলি ফ্যামিলিতে চিকিৎসা খরচ তুলনামূলক বেশি বলে অভিযোগ করেন।

জানা যায়, রাজধানীতে যেসব হাসপাতাল ডেঙ্গুর চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে, তার মধ্যে হলি ফ্যামিলি অন্যতম। রাজধানীর অন্য হাসপাতালের চেয়ে এখানে রোগীর সংখ্যাও বেশি।

প্রতিষ্ঠানটির সার্ভিস বিভাগের সহকারী নজরুল ইসলাম জানান, চলতি বছরের ৬ জুন হলি ফ্যামিলিতে প্রথম ডেঙ্গুরোগী ভর্তি হন। এরপর থেকে ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন মাসে হাসপাতালটিতে চিকিৎসা নিয়েছেন ৭৮৩ জন। এরমধ্যে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। বাকি সবাই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

তিনি আরও জানান, ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে বিগত এক সপ্তাহে হলি ফ্যামিলিতে ভর্তি হয়েছেন ৭২ জন। এর মধ্যে ২১ সেপ্টেম্বর ১০ জন, ২০ সেপ্টেম্বর ২০ জন, ১৯ সেপ্টেম্বর তিনজন, ১৮ সেপ্টেম্বর ছয়জন, ১৭ সেপ্টেম্বর পাঁচজন, ১৬ সেপ্টেম্বর সাতজন, ১৫ সেপ্টেম্বর ১৪ জন এবং ১৪ সেপ্টেম্বর ৭ জন ভর্তি হয়েছেন।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের একজন চিকিৎসক জানান, ডেঙ্গু ধরা পড়ার পর একজন রোগীকে পাঁচ থেকে ছয়দিন চিকিৎসা নিতে হয়। কোনো কোনো রোগীকে এর চেয়ে কম ও আবার পরিস্থিতি বুঝে সর্বোচ্চ আটদিন পর্যন্ত চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এসময় শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি কয়েকজন রোগীর অভিভাবকের সঙ্গে কথা হয়। পাঁচ বছর বয়সী এক শিশুর বাবা বলেন, আমরা এখানে আসার আগেই ডেঙ্গু পরীক্ষা করিয়েছি। আমরা জানতাম যে, আমাদের বাচ্চা ডেঙ্গুতে আক্রান্ত। আমাদের এক পরিচিত চিকিৎসক বলেছেন হলি ফ্যামিলিতে নাকি ডেঙ্গু ভালো হয়। এজন্য এসেছি।

তবে, হাসপাতালের চিকিৎসা খরচ তুলনামূলক বেশি বলেও অভিযোগ করেন একাধিক রোগীর অভিভাবক। তারা বলেন, ভেবেছিলাম এখানে সিট ভাড়া কম হবে। কিন্তু বড় বড় ভিআইপি হাসপাতালের তুলনায় একেবারে কম নয়। এখানে ডেঙ্গুরোগী ভর্তির সঙ্গে সঙ্গে ‘হিউম্যান অ্যালবুমিন’ নামে একটা ইনজেকশন দেওয়া হয়। যার দাম সাত হাজার টাকা। এর আগে একাধিক হাসপাতালে রোগী ভর্তি করিয়েছি। কিন্তু এ ইনজেকশন দেয়নি। এখানে বাড়তি খরচও হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জানতে কথা হয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, সাধারণ বেডে একদিনের ভাড়া (ননএসি) ৯শ টাকা ও এসি হলে ১৬শ টাকা। এছাড়া কেবিন ভাড়া একদিনে চার হাজার টাকা পর্যন্তও আছে।

ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে জানতে চাইলে হলি ফ্যামিলির কার্ডিওলজি ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. উত্তম কুমার দাস বলেন, আমাদের এখানে যারা ডেঙ্গু নিয়ে কাজ করেন তারা ডেঙ্গু বিষয়ে অভিজ্ঞ। ২০০১ সাল থেকে আমরা ডেঙ্গুকে বিশেষ বিবেচনায় চিকিৎসা দিয়ে আসছি। তাই আমাদের এখানে ডেঙ্গু ভালো হয় বলে একটা সুনাম আছে।

এসময় ‘হিউম্যান অ্যালবুমিন’ ইনজেকশনের দেওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা শঙ্কামুক্ত হওয়া জন্য শুরুতেই ইনজেকশনটা দেওয়ার কথা বলি। এছাড়া আমাদের এখানে দ্রুত প্লাটিলেট সংগ্রহ করা হয়। যা অন্যসব হাসপাতালে সম্ভব হয় না।

চলতি বছরে দেশে ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৬ হাজার ২২২ জন। এর মধ্যে ৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। জুলাইয়ে ১২ জন, আগস্টে ৩৪ জন এবং চলতি মাসে ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ১ হাজার ৩১ রোগী ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার ৪১টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ৮৩৬ জন ও দেশের অন্য বিভাগগুলোতে ১৯৫ রোগী ভর্তি রয়েছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

আমার বার্তা/গাজী আক্তার


আরো পড়ুন