শিরোনাম :

  • গুজবে ঝরছে প্রাণ, দায় কার? ৭২ হাজার ৭৪৬ হজযাত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আগস্টের প্রথম সপ্তাহে ভারত যাচ্ছেন বাড্ডায় গণপিটুনি দিয়ে নারী হত্যার ঘটনায় ৩ যুবক আটক ধোনি নিজ ইচ্ছাতেই ভারতীয় দল থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন
এরদোয়ানের একে পার্টি হেরে যাওয়ায় নির্বাচন বাতিল
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
০৭ মে, ২০১৯ ১৪:০৮:৪৮
প্রিন্টঅ-অ+


গত মার্চে অনুষ্ঠিত তুরস্কের বৃহত্তম শহর ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচনে দেশটির ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের দলকে হারিয়ে বিরোধী দল সিএইচপি পার্টি জিতে যাওয়ায় ওই নির্বাচন বাতিল করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, শহরের নিয়ন্ত্রণ নিতে মরিয়া এরদোয়ানের দলের জন্য এই নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচন আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির নির্বাচন কমিশন।

কমিশনের এই ঘোষণার পর বিরোধীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ শুরু হয়েছে। প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের একে পার্টি মার্চের ওই নির্বাচনে অনিয়ম এবং দুর্নীতির মাধ্যমে সামান্য ব্যবধানে বিরোধী দল সিএইচপি জয়ী হয়েছে বলে অভিযোগ করে।

সিএইচপির প্রার্থী একরেম ইমামোগলুকে এপ্রিলে ইস্তাম্বুলের মেয়র হিসেবে নিশ্চিত করা হয়। কিন্তু নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচন অনুষ্ঠানে কমিশনের ঘোষণাকে বিশ্বাসঘাতক সিদ্ধান্ত বলে মন্তব্য করেছেন।

আগামী ২৩ জুন এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। নির্বাচন কমিশনের এ ঘোষণার পর ইস্তাম্বুলে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ করেছেন বিরোধীরা। সোমবার ইস্তাম্বুলের বেশ কয়েকটি জেলায় শত শত মানুষ বিক্ষোভে অংশ নেন। এসময় তারা রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের নেতৃত্বাধীন সরকারের বিরোধীতা করে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেন।

ইউরোপীয় পার্লামেন্ট বলছে, পুনর্নির্বাচনের এই সিদ্ধান্ত তুরস্কের গণতান্ত্রিক নির্বাচনের বিশ্বাসযোগ্যতাকে কবর দেবে।

কেন এই ভোট?

ইলেক্টোরাল বোর্ডে একেপির প্রতিনিধি রিসেপ ওজেল বলেন, কিছু নির্বাচনী কর্মকর্তা বেসরকারি ছিলেন এবং কিছু পেপার স্বাক্ষর হয়নি; যে কারণে পুনর্নির্বাচনের ঘোষণা এসেছে। তবে সিএইচপির উপ-চেয়ারম্যান ওনুর্সাল আদিগুজেল বলেন, পুনর্নিবাচনের অর্থ হচ্ছে, একে পার্টির বিরুদ্ধে জয় লাভ করা অবৈধ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেয়া এক টুইট বার্তায় আদিগুজেল বলেছেন, এই সিদ্ধান্ত একেবারে স্বৈরতান্ত্রিক। এই ব্যবস্থা যা জনগণের ইচ্ছাকে অগ্রাহ্য করে এবং আইনের তোয়াক্কা করে না; তা গণতান্ত্রিক নয়, বৈধও নয়।

এক বিবৃতিতে ইস্তাম্বুলের এই বিরোধী নেতা নির্বাচন কশিনের নিন্দা জানান। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের ওপর ক্ষমতাসীন একে পার্টি প্রভাব বিস্তার করছে। কিন্তু আমরা আমাদের নীতি-নৈতিকতার সঙ্গে কখনোই আপোষ করবো না।

এই দেশটি আট কোটি ২০ লাখ দেশপ্রেমী মানুষের; যারা লড়াই করবেন...গণতন্ত্রের সর্বশেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তারা লড়বেন। উত্তেজিত সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বিরোধীদলীয় এই নেতা বলেন, চলুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হই, শান্ত হই... আমরাই জয়ী হবো, আমরাই আবারো জয়ী হবো।

তুরস্কের ভঙ্গুর অর্থনৈতিক অবস্থার মাঝে বহুমুখী চাপের মাঝে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। গত ৩১ মার্চ ইস্তাম্বুলের মেয়র নির্বাচনে তার দল একে পার্টি সামান্য ব্যবধানে বিরোধী দল সিএইচপির কাছে হেরে যায়।



আমার বার্তা/০৭ মে ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন