শিরোনাম :

  • ১১০ উপজেলা-পৌরসভা-ইউপিতে ভোট শুরু ধর্মঘটে উবার চালকরা ১১ নারী কর্মকর্তাকে শাড়ি উপহার দিলেন অর্থমন্ত্রী চট্টগ্রাম-মদিনা সরাসরি ফ্লাইট ৩১ অক্টোবর পুলিশের ওপর হামলা : নব্য জেএমবির দুই সদস্য গ্রেফতার
ওমান সাগরে ‘অজানা অঘটন’ ঘটেছে : ব্রিটিশ নৌবাহিনী
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
১৩ জুন, ২০১৯ ১৩:৫৫:০৫
প্রিন্টঅ-অ+


সামুদ্রিক নিরাপত্তাবিষয়ক ব্রিটিশ একটি গ্রুপ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, ওমান সাগরে অজানা এক অঘটন ঘটেছে। সৌদি আরবের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আভা বিমানবন্দরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ২৬ জন আহত হওয়ার পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে ওমান সাগরে তেলবাহী ট্যাঙ্কারে দুটি বিস্ফোরণের ঘটনাকে ইঙ্গিত করে এই সতর্কবার্তা দিয়েছে ব্রিটিশ ওই গ্রুপ।

ওয়াশিংটন এবং তেহরানের চরম উত্তেজনার মাঝে এই বিস্ফোরণের ঘটনায় ‘সর্বোচ্চ সতর্কতা’ অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছে ব্রিটিশ রয়্যাল নৌবাহিনী পরিচালিত এই সংস্থাটি। মধ্যপ্রাচ্যে তেহরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি নেতৃত্বাধীন কয়েকটি দেশের চলমান উত্তেজনার মাঝে ইরানে পৌঁছেছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার সকালের দিকে ওমান সাগরে তেলবাহী ট্যাঙ্কারে হামলা হয়েছে বলে দাবি করেছে। তবে এই হামলার ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেয়নি দেশটি। মার্কিন সংবাদ সংস্থা এপি বলছে, ওমান সাগরে বিস্ফোরণের পর ব্রিটিশ নৌবাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ওই বিস্ফোরণ কী ধরনের ছিল, তা জানায়নি ব্রিটিশ নৌবাহিনী। তবে দেশটি বলছে, তারা বিস্ফোরণের ওই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে।

বাহরাইনভিত্তিক মার্কিন নৌবাহিনীর পঞ্চম নৌবহরের মুখপাত্র জশুয়া ফ্রে বলেছেন, ওই এলাকায় বিস্ফোরণের ঘটনার পর তার নেতৃত্বাধীন কমান্ড সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। তিনিও বিস্তারিত তথ্য জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

বার্তাসংস্থা এপিকে তিনি বলেন, আমরা বিস্তারিত তথ্য পেতে কাজ করছি। এদিকে, লেবাননের সংবাদভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-মায়াদিনের বরাত দিয়ে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল প্রেস টিভি দাবি করেছে, ওমান সাগরের কাছে দুটি তেলবাহী ট্যাঙ্কার আক্রান্ত হয়েছে। তবে দাবির পক্ষে কোনো ধরনের প্রমাণ দিতে পারেনি ইরানি এই সংবাদমাধ্যম।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের কর্মকর্তারাও ওমান সাগরে হামলার ব্যাপারে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরাহ বন্দরে চারটি তেল ট্যাঙ্কারে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হওয়ার প্রায় এক মাস পর ওমান সাগরে তেল ট্যাঙ্কারে হামলার খবর এল। এর আগে গত ১২ মে ফুজাইরাহ বন্দরে সৌদি আরবের দুটি, আমিরাত এবং নরওয়ের একটি তেলবাহী ট্যাঙ্কারে বিস্ফোরণ হয়।

এই বিস্ফোরণের জন্য ইরানকে দায়ী করে পাল্টা প্রতিশোধের হুঁশিয়ারি দেয় সৌদি। এই হুঁশিয়ারির এক মাসের মাথায় ওমান সাগরে তেলবাহী ট্যাঙ্কারে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটলো। যদিও ফুজাইরাহ বিস্ফোরণের সঙ্গে ইরানের কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতা নেই বলে দাবি করেছে তেহরান।

ওমান সাগরে এমন এক সময় হামলার ঘটনা ঘটলো; যখন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে ইরান সফরে রয়েছেন। এমন সময়ে এই হামলাকে স্পর্শকাতর হিসেবে বলা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র-ইরানের মাঝে উত্তেজনা উসকে দিতে পারে এমন সংঘাতমূলক কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন অ্যাবে। বুধবার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে বৈঠকের পর শিনজো অ্যাবে সব পক্ষকে সতর্কা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

সৌদি আরবের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একটি বিমানবন্দরে ইয়েমেনের বিদ্রোহীগোষ্ঠী হুথিদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ২৬ জন আহত হয়।



আমার বার্তা/১৩ জুন ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন