শিরোনাম :

  • আজ সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী কারওয়ান বাজারের কলার আড়তের আগুন নিয়ন্ত্রণে করোনা মোকাবিলায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ২৩ কোটি টাকার বরাদ্দ যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রেকর্ড, একদিনে প্রাণ গেল ১২২৪ জনের
সিঙ্গাপুরে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছেই
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
১৬ মার্চ, ২০২০ ১০:৪২:৪৩
প্রিন্টঅ-অ+


বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছেই। সিঙ্গাপুরে কিছুদিন আগের করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা কমে এসেছিল। কিন্তু হঠাৎ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আবারও বাড়তে শুরু করেছে। গতকাল (১৫ মার্চ) একদিনে সর্বোচ্চ ১৪ জন আক্রান্ত হয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিশ্চিত করেছে।

গত কয়েকদিনে গড়ে ১০ থেকে ১৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। তবে নতুন এই আক্রান্তদের বেশিরভাগই বাইরের দেশগুলোর সঙ্গে সম্পৃক্ত। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্যমতে, গতকালের ১৪ জনসহ মোট ২২৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন ১০৫ জন। ওই ১৪ জনের মধ্যে ৯ জনের অন্যান্য দেশের সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে।

তাই সর্তকতা অবলম্বনের জন্য সিঙ্গাপুর সরকার ৭টি দেশকে নিষিদ্ধ করেছে। এই সাত দেশ থেকে সিঙ্গাপুর ভ্রমণে আসা যাবে না এমনকি সিঙ্গাপুরকে ট্রানজিট হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে না। দেশগুলো হলো : চীস, ফ্রান্স,জার্মানি, ইতালি, ইরান, দক্ষিন কোরিয়া ও স্পেন।

তাছাড়া সিঙ্গাপুরে বসবাসকারীদের কিছু দেশে ভ্রমণের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি নির্দেশনা জারি করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়। এসব দেশ থেকে ভ্রমণ শেষে নাগরিকরা সিঙ্গাপুরে ফিরলে তাদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। দেশগুলো হলো, দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান, ইতালি, ফ্রান্স,জার্মানি, স্পেন, জাপান, সুইজারল্যান্ড, ইংল্যান্ড এবং আসিয়ান দেশ (ব্রুনাই, লাওস, মায়ানমার, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন,থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুর)।

আরও কয়েকটি দেশ থেকে সিঙ্গাপুরে ভ্রমণ কিংবা চাকরির সুবাদে আসা যাবে তবে তাকে বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন থাকতে হবে। দেশগুলো হলো : জাপান, সুইজারল্যান্ড, ইংল্যান্ড এবং আসিয়ানভুক্ত দেশ। তবে মালয়শিয়া এই নিয়মের আওতায় থাকবে না।

তবে আসিয়ানভুক্ত দেশগুলো থেকে আসার আগে করোনাভাইরাস মুক্ত স্বাস্থ্য সনদ সঙ্গে করে নিয়ে আসতে হবে বলে জানানো হয়েছে। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে তেমন কোন নির্দেশনা জারি করা হয়নি। তাই বাংলাদেশিদের সিঙ্গাপুরে আসা যাওয়ার ক্ষেত্রে তেমন কোন প্রভাব পড়বে না।

তবে বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুরে আসার পর বিমানবন্দরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। যদি করোনাভাইরাসে কোন লক্ষণ ধরা পড়ে তবে তাকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে। আর সুস্থ থাকলে সরাসরি নিজ নিজ বাসস্থানে আসতে পারবে।

সিঙ্গাপুরে বসবাসকারী স্থানীয় ও অভিবাসীদের করোনাভাইরাসের চিকিৎসা সিঙ্গাপুর সরকারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে করা হচ্ছে। তবে ভ্রমণকারী বা পর্যটকদের চিকিৎসা ব্যয় সিঙ্গাপুর সরকার বহন করবে না।



আমার বার্তা/১৬ মার্চ ২০২০/জহির


আরো পড়ুন