শিরোনাম :

  • আজ সারাদেশে হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি করোনায় প্রাণ হারালেন আরও এক চিকিৎসক চীনের করোনা বিশেষজ্ঞ দল আসছে ৮ জুন প্রধান বিচারপতি করোনা আক্রান্ত নন : আইনমন্ত্রী
করোনাভাইরাসের নাম নিলেই জেলে যেতে হবে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
০২ এপ্রিল, ২০২০ ১০:৪৩:০৭
প্রিন্টঅ-অ+


করোনাভাইরাস পরিস্থিতি দিন দিন ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে নয় লাখ। আর মৃত্যু হয়েছে প্রায় সাড়ে ৪৭ হাজার মানুষের। এ পরিস্থিতিতে মধ্য এশিয়ার দেশ তুর্কমেনিস্তান ঘোষণা দিয়েছে সে দেশে মাস্ক পরা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। শুধু তাই নয় কেউ করোনাভাইরাসের নাম উচ্চারণ করলেই তাকে জেলে যেতে হবে। এমনকি স্বাস্থ্য বিষয়ক বিভিন্ন নথি, স্কুল, হাসাপাতাল ও কর্মস্থলে করোনাভাইরাসের নাম ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সরকার। তারা ঘোষণা দিয়েছে তাদের দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনো ব্যক্তি নেই।

এক সময়ের সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত মধ্য এশিয়ার এ দেশটির পাশেই অবস্থান ইরানের। ইরানে করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। দেশটিতে সাড়ে ৪৭ হাজারেরও বেশি মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে প্রায় সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি মানুষের। তবে ইরানের পাশে অবস্থান সত্ত্বেও করোনাভাইরাসের কোনো অস্তিত্ব নেই বলে দাবি করেছে তুর্কমেনিস্তান প্রশাসন। তাই ভয়ানক ভাইরাস ‘করোনা’র নাম ব্যবহারেও জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

সারাবিশ্ব করোনা প্রতিরোধে নিয়েছে বিভিন্ন পদক্ষেপ। এর মধ্যে জনসাধারণের জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে অধিকাংশ দেশ। আর তুর্কমেনিস্তানে মাস্ক পরা কাউকে রাস্তায় দেখলেই গ্রেফতার করছে পুলিশ।

প্যারিসে বসবাসকারী তুর্কমেনিস্তানের সাংবাদিকরা জানান, করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে যারা মাস্ক ব্যবহার করছেন তাদেরই পুলিশ গ্রেফতার করছে। একই শাস্তি জুটবে যারা করোনা শব্দ ব্যবহার করবে তাদের ভাগ্যেও। ফলে, জ্বর, সর্দি-কাশি হলেও প্রশাসনের ভয়ে কেউ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যাচ্ছেন না।

ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ইনডেক্স ২০১৯ তালিকা অনুযায়ী তুর্কমেনিস্তানের স্থান সবার নিচে। গ্যাস সমৃদ্ধ তুর্কমেনিস্তানে কার্যত চলছে স্বৈরশাসন।

তুর্কমেনিস্তান প্রেসিডেন্ট গুরবাঙ্গুলি বেরদিমুখামেদভ ২০০৬ সাল থেকে দেশটি শাসন করছেন। সেদেশে প্রেসিডেন্টকে ‘আরকাদক’ বলেই মনে করা হয়। বাংলায় যার অর্থ রক্ষক।



আমার বার্তা/০২ এপ্রিল ২০২০/জহির


আরো পড়ুন