শিরোনাম :

  • আজ সারাদেশেই ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত স্মারক ডাক টিকিট অবমুক্ত করল জাতিসংঘ ট্রাম্পের মধ্যস্থতার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিল ভারত-চীন ৬০ লাখ ছাড়াল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, সুস্থ ২৬ লাখ
দক্ষিণ সুদানে সাম্প্রদায়িক সংঘাতে নিহত ৩০০
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
২১ মে, ২০২০ ১৬:৩৩:১৫
প্রিন্টঅ-অ+


উত্তর আফ্রিকার দেশ দক্ষিণ সুদানে সাম্প্রদায়িক সংঘাতে অন্তত ৩০০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। সাম্প্রদায়িক এই সহিংসতায় শত শত ঘরবাড়ি ধ্বংস ও নারীদের অপহরণ এবং গবাদি পশু লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।  

এতে বলা হয়েছে, দক্ষিণ সুদানের জংলেই রাজ্যে আন্তঃসাম্প্রদায়িক সংঘাতে  তিনশ জন নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজন দাতব্য কর্মীও আছেন।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দক্ষিণ সুদানের ছয় বছরের গৃহযুদ্ধের অবসানে একটি শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। কিন্তু তারপরও দেশটিতে বেশ কয়েকবার আন্তঃসাম্প্রদায়িক সংঘাতের ঘটনা ঘটে। ফেব্রুয়ারির পর থেকে এখন পর্যন্ত এ ধরনের সংঘাতে দেশটিতে প্রায় ৮০০ মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে।

সর্বশেষ গত শনিবার দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলের পাইরি শহরে সংঘাত ছড়িয়ে পড়ে। ওইদিন এই এলাকার মহিষ পালক ও খামারের শ্রমিকদের মধ্যে সংঘাত শুরু হয়। এতে হাজার হাজার মানুষ এলাকা ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে যেতে বাধ্য হন।  

সংঘাতে প্রায় ৩০০ জন মারা গেছেন জানিয়ে স্থানীয় এক স্বাস্থ্য কর্মী বলেন, নিহতদের অনেকের শরীরে গুলির আঘাত রয়েছে। চিকিৎসার জন্য আহতদের অনেককে হেলিকপ্টারে করে রাজধানী জুবায় নেয়া হয়েছে।

সংঘাতে নিহত দাতব্য কর্মীদের মধ্যে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা মেডিসিনস স্যানস ফ্রন্টিয়ার্সের এক সদস্য রয়েছে। দেশটিতে নিয়োজিত জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশন এক বিবৃতিতে বলেছে, সংঘাত ছড়িয়ে পড়ার ব্যাপারে জানতে শান্তিরক্ষীরা সেখানকার মানুষের জবানবন্দি নিচ্ছেন।

দক্ষিণ সুদানে নিয়োজিত জাতিসংঘের বিশেষ দূত ডেভিড শেরার বলেন, দুই গ্রুপের এই সংঘাত অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। দেশটিতে রাজনৈতিক সংঘাত কমে এলেও আন্তঃসাম্প্রদায়িক লড়াই বাড়ছে। কয়েক বছরের গৃহযুদ্ধের ধ্বংসযজ্ঞ থেকে মানুষ যখন স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছেন তখন এ ধরনের সংঘাত ব্যাপক ভোগান্তি তৈরি করছে।

উত্তর আফ্রিকার এই দেশটিতে দীর্ঘদিনের গৃহযুদ্ধে অন্তত ৩ লাখ ৮০ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। দেশটির প্রেসিডেন্ট সালবা কির নেতৃত্বে গত ফেব্রুয়ারিতে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর নেতা রিয়েক মাচারের সঙ্গে একটি শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। সেই সময় দেশটিতে জাতীয় ঐক্যের সরকার গঠন করা হয়।  

কিন্তু প্রতিনিয়ত আন্তঃসাম্প্রদায়িক সংঘাতের কারণে সেই শান্তিচুক্তি ভেস্তে যাওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। দেশটির নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো বলছে, তারা সংঘাত কবলিত এলাকা থেকে রাইফেল, রকেট চালিত গ্রেনেড, হ্যান্ড গ্রেনেডসহ শত শত অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছেন।



আমার বার্তা/২১ মে ২০২০/জহির


আরো পড়ুন