শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
তাইওয়ানকে চীনের আক্রমণ থেকে রক্ষার প্রতিশ্রুতি যুক্তরাষ্ট্রের
২২ অক্টোবর, ২০২১ ১৭:২২:১৮
প্রিন্টঅ-অ+

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, চীন যদি দ্বীপরাষ্ট্র তাইওয়ানকে আক্রমণ করে তাহলে তা প্রতিরোধ করবে যুক্তরাষ্ট্র। বাইডেনের এমন বক্তব্যের মাধ্যমে চীন ও তাইওয়ানের ব্যাপারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এত দিন যে অস্পষ্ট রহস্যময় নীতি অবলম্বন করত তা থেকে পিছু হটল। শুক্রবার এমন সংবাদ প্রকাশ করেছে আল-জাজিরা।


সিএনএন টাউন হলে তাইওয়ানের নিরাপত্তার বিষয়ে বাইডেনকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, হ্যা তাইওয়ানকে আমরা নিরাপত্তা দিব। এ বিষয়ে আমরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। যদিও তিনি এ কথাও স্বীকার করেন যে তাইওয়ান নিয়ে চীনা কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে তীব্র সামরিক ও রাজনৈতিক চাপে আছেন। চীনের দাবি তাইওয়ান দ্বীপটি তাদের।


তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র জাভিয়ের চেং বলেছেন, তাইওয়ান তার নিজের আত্মরক্ষা নিশ্চিত করবে। তবে তাইওয়ানকে দৃঢ় সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে বাইডেন প্রশাসন। কিছুদিন ধরে চীন এবং তাইওয়ান এর মধ্যে উত্তেজনা তীব্র হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি তাইওয়ানের আকাশ-প্রতিরক্ষা জোনে চীনের কমপক্ষে ১৫০ টি যুদ্ধবিমান মহড়া দিয়েছে। এরপর থেকে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা তীব্র থেকে তীব্র হয়ে উঠেছে। 


এসব প্রেক্ষিতে টাউনহল আলোচনা হয়। সেখানে প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, চীনের সঙ্গে ইচ্ছাকৃত একটি যুদ্ধ নিয়ে উদ্বিগ্ন নয় যুক্তরাষ্ট্র। চীন অধিক শক্তিশালী কিনা এ নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। কারণ চীন, রাশিয়া এবং বাকি বিশ্ব জানে বিশ্বের সামরিক ইতিহাসে সবচেয়ে শক্তিশালী কোন দেশ।


প্রেসিডেন্ট বাইডেন আরও বলেন, কানাডা ও ইউরোপে ন্যাটো মিত্রদের রক্ষা করার জন্য যেমন একটি প্রতিশ্রুতি রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ঠিক তেমনি জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ানের সাথেও প্রতিশ্রুতি রয়েছে।


বহু বছর ধরে চীন ও তাইওয়ানের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র একটি অস্পষ্ট রহস্যময় নীতি অবলম্বন করে। এ নীতির আওতায় যুক্তরাষ্ট্র তাইওয়ানকে সামরিক সহায়তা দেয়। কিন্তু, মার্কিন কর্তৃপক্ষ আগে কখনো প্রকাশ্যে বলেনি যে চীনা আক্রমণের সময় তারা তাইওয়ানের সহায়তায় এগিয়ে আসবে।মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হোয়াইট হাউস থেকে বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদকদের বলা হয়েছে, তাইওয়ানের বিষয়ে মার্কিন নীতির কোনো পরিবর্তন হবে না।


আমার বার্তা/ সি এইচ কে

আরো পড়ুন