শিরোনাম :

  • জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে যোগ দিলেন রাবাব ফাতিমা পরিবর্তন আসছে ৬৭ ট্রেনের সময়সূচিতে হায়দারাবাদের পর এবার বিহারে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে হত্যা মৌরিতানিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ৫৮ শরণার্থীর মৃত্যু
মিসর বইমেলায় বাংলাদেশীর চার বই
মাসউদুল কাদির :
২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৮:০১:২৭
প্রিন্টঅ-অ+


মিসর আন্তর্জাতিক বইমেলায় বাংলাদেশী লেখক মাওলানা আরীফ উদ্দীন মারুফের চারটি বই বিক্রি হচ্ছে। বিশ্বের সব ইসলামিক স্কলারদের লেখা গ্রন্থ মিসরের সেই আন্তর্জাতিক বইমেলায় বই শো করে রাখা হয়েছে। সে সাথে বাংলাদেশের রাজধানীর সার্কিট হাউস জামে মসজিদের খতীব মাওলানা মারুফের বইও শোভা পাচ্ছে। এই বাংলাদেশীর বই কিনতেও ভিড় করছে অনেকে। সেখানে সরাসরি উপস্থিতও হয়েছেন এই মাওলানা।

বুধবার (২৩ জানুয়ারি) থেকে মিসরের কায়রোতে শুরু হয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ইসলামিক বইমেলা। সকাল ১০টায় মিসরের শিক্ষামন্ত্রী তারেক শাওকী এ মেলার উদ্বোধন করেন।

মিসর থেকে সরাসরি এ প্রতিবেদককে বলেন, আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহর অশেষ রহমতেই আমার এ সৌভাগ্য অর্জন হয়েছে। এর আগেও আরববিশ্বে আমার ৩টি বই প্রকাশিত হয়। এবার মিশরের প্রাচীন ও বিশ্ববিখ্যাত প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান 'মাকতাবাতুত তাওফিকিয়্যাহ'র আমন্ত্রণেই এখানে এসেছি।



মিসর বইমেলায় বাংলাদেশীর চার বই

এদিকে মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) মিশরের ডেইলি পত্রিকা আকীদাতিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার অভিভাবক পরিষদ সদস্য ও জামিআ ইকরা বাংলাদেশের রইস মাওলানা আরীফ উদ্দিন মারুফ বলেন, তার চারটি বই এই বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে। মক্কার দারু তইবা প্রকাশনী থেকে 'ফি লাহজাতিল ওয়াদায়িল আখির', দারুল হাদিস থেকে 'রাওয়ায়ে মিন আশআরিস সাহাবাহ' মাকতাবুত তাওফিকিয়্যা থেকে 'রিসালাতুল আমনি ওয়াস সালাম' এবং দারু তইবা থেকেই 'আলা ইয়া আইনু ইবকি'। মিসরের এ অভিজাত প্রকাশনীগুলোতেই পাওয়া যাচ্ছে তার লিখিত চার বই।

উল্লেখ্য, ৬০ বছরের প্রাচীন মিশরের এই আন্তর্জাতিক বইমেলা। 'মা'আরাতুল কাহেরা আদদাওলিলিল কিতাব' নামে যেটি সারা পৃথিবীতে প্রসিদ্ধ। এই মেলায় বিশ্বের প্রায় ৫৮টি দেশের ৫০০ এর অধিক প্রকাশনী অংশগ্রহণ করেছে।



আমার বার্তা/২৪ জানুয়ারি ২০১৯/জহির

 


আরো পড়ুন