শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
প্রভুর ভয়; শ্লীলতার জয়: আমিনুল ইসলাম কাসেমী
২৬ আগস্ট, ২০২১ ২০:২২:৪৬
প্রিন্টঅ-অ+


দুনিয়ার কোন আইন মানুষকে অন্যায়-অবৈধ কাজ থেকে বিরত রাখতে পারে না। একমাত্র আল্লাহর ভয় মানুষকে খারাপ কাজ থেকে ফিরিয়ে রাখতে পারে। কত মানুষ আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখায়। আইন-কানুন মেনে চলে না। কিন্তু কারো দিলের মাঝে যদি একবার আল্লাহর ভয় ঢুকে যায়, তাহলে সে আর কোন অবৈধ রাস্তায় পা বাড়াবে না।

বর্তমানে এমন ঘটনা ঘটছে। অন্যায়কারীর মামলা তদন্ত করতে গিয়ে আটকে যাচ্ছে তদন্ত কর্মকর্তা। অর্থাৎ যাকে দিয়ে ভ‚ত ছাড়াব তাকেই ভ‚তে ধরেছে। সে নিজে এখন অন্যায় কাজের সাথে জড়িত। কিন্তু তার মধ্যে যদি আল্লাহর ভয় থাকত তাহলে কখনো ওই রকম ঘটনার শিকার হত না। অন্যায় কাজের দিকে পা বাড়াতে পারত না। এ রকম হাজারো ঘটনা ঘটছে আমাদের সমাজে। কারো অন্যায়ের বিচার করতে গিয়ে বা শালিসী বৈঠক করতে গিয়ে শেষমেষ সে নিজেই ফেঁসে যায়। অবৈধ প্রেম-ভালবাসা বা যিনা-ব্যভিচারের বিচার করতে গিয়ে বিচারক নিজেই আটকে যাচ্ছেন। সে নিজেই অবৈধ কাজে জড়িয়ে পড়ছেন। এ রকম বহু ঘটনা ঘটছে। এ কারণে প্রত্যেক ব্যক্তির আল্লাহর ভয় রাখতে হবে। নিজের চরিত্রের সংশোধন করতে হবে। তাহলে সে বিচারকার্য সঠিকভাবে করতে পারবে এবং অন্যায় অবৈধ রাস্তা থেকে নিজেকে বিরত রাখতে পারবে। পবিত্র কুরআনে ইরশাদ হয়েছে, হে ঈমানদারেরা! তোমরা আল্লাহকে ভয় কর, এবং সঠিক কথা বল; তাহলে তোমাদের কাজগুলো শুদ্ধ করে দিবেন এবং গোনাহ মাফ করে দিবেন। (সূরা আহযাব : আয়াত ৭০)

পবিত্র কুরআনের বহু জায়গাতে এভাবে আল্লাহকে ভয় করার কথা বলা হয়েছে। আল্লাহকে ভয় করলে, সঠিক কথা বললে মানুষের কাজগুলো আল্লাহ তায়ালা শুদ্ধ করে দেন এবং গোনাহ মাফ করে দেন।

মানুষ আল্লাহকে ভয় করলে তার দিলের মধ্যে মহান রবের বড়ত্ব এবং ভীতি সঞ্চার হলে সে কখনো খারাপ কাজ করার সাহস রাখবে না। সে কোন খারাপ কাজ করতে গেলে আল্লাহর ভয়ে, আল্লাহর আজাবের ভয়ে ফিরে আসবে। অবৈধ কাজ করার সময় আল্লাহর ভয়ে বুক কেঁপে উঠবে। সে আর ওই কাজে জড়াতে পারবে না। সে  ব্যক্তি আল্লাহর কাছে অনেক পেয়ারা হয়ে যাবে। পবিত্র কুরআনের অন্যত্র ইরশাদ হয়েছে, নিশ্চয়ই আল্লাহর কাছে অধিক মর্যাদাসম্পন্ন ওই ব্যক্তি যে আল্লাহকে অধিক ভয় করে। (সূরা হুজুরাত : আয়াত ১৩)

আল্লাহকে ভয় করার দ্বারা অশ্লীল-অবৈধ কাজ থেকে বিরত থাকার পাশাপাশি সেই ব্যক্তি আল্লাহর কাছে অধিক সম্মানিত হয়ে যায়। আল্লাহ তায়ালার ভালবাসা সে অর্জন করতে পারে। একজন মোমিন বান্দা হিসেবে পরিগণিত হয়।

আল্লাহর ভয় কীভাবে আসবে? আল্লাহর ভয় অর্জন করতে হলে কিছু বিষয়ের পাবন্দি জরুরি। তাহলে মানুষের দিলে আল্লাহর ভয় চলে আসবে। যেমনÑ

১. আল্লাহ তায়ালার হুকুম মানা। তিনি যে নির্দেশ দিয়েছেন, সেটা মেনে চলার চেষ্টা করা। যেমন: নামাজ, রোজা, ইত্যাদি ফরজ বিষয়গুলো যথাযথভাবে আদায় করার চেষ্টা করা।

২. নজরের হেফাজত করা। কুদৃষ্টি থেকে বিরত থাকা। দৃষ্টিকে অবনমিত করা। যেমন: আল্লাহ তায়ালা মোমিন বান্দাদের বলেছেন, তোমরা দৃষ্টিকে অবনমিত কর এবং লজ্জা স্থানের হেফাজত কর।

৩. নেক আমল করার চেষ্টা করা। গোনাহের কাজ না করা।

৪. নফল ইবাদত বেশি বেশি করার চেষ্টা করা। যেমন: কোরআন তেলাওয়াত, জিকির করা।

৫. সিনেমা, নাটক, অশ্লীল ছায়াছবি, গান-বাজনা থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা।

৬. ভাল পরিবেশে থাকার চেষ্টা করা। ভাল মানুষের সংস্পর্শে থাকার চেষ্টা করা।

এ রকম কিছু নিয়ম মেনে চললে আল্লাহর ভয় মানুষের মধ্যে আসবে। তখন তার দ্বারা আর গোনাহের কাজ করা সম্ভব হবে না। সে আর কোন খারাপ কাজ করতে চাইবে না। ভাল কাজের দ্বারা মানুষ খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকতে পারে। ভাল কাজই তাকে খারাপ থেকে দূরে নিয়ে যায়। একজন লোক যখন ভাল কাজ করবে না। সে অলস সময় কাটাবে। তখন তার মধ্যে শয়তান বাসা বাঁধবে। সে তখন অন্যায়ের দিকে ধাবিত হবে। এজন্য এ থেকে বাঁচতে ভাল কাজ করুন। বেশি বেশি নেক আমল করতে থাকুন। দিলের মধ্যে আল্লাহর ভয় আনুন। তাহলে অবশ্যই অন্যায়-অশ্লীল কাজ থেকে বিরত থাকতে পারবেন। আল্লাহ তায়ালা আমাদের উপর রহম করুন। আমিন।

লেখক : মুহতামিম, নিজামিয়া মাদরাসা, গোয়ালন্দ, রাজবাড়ি





 


আরো পড়ুন