শিরোনাম :

  • আজ সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী কারওয়ান বাজারের কলার আড়তের আগুন নিয়ন্ত্রণে করোনা মোকাবিলায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ২৩ কোটি টাকার বরাদ্দ যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রেকর্ড, একদিনে প্রাণ গেল ১২২৪ জনের
গরম পানিতে লেবু মিশিয়ে খান? জেনে নিন এর ক্ষতিকর দিক
আমার বার্তা ডেস্ক :
২৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১১:২৮:২৫
প্রিন্টঅ-অ+


হঠাৎ বেড়ে যাওয়া ওজন নিয়ে মুশকিলে পড়েছেন। এদিকে আশেপাশের অনেকে পরামর্শ দিলেন সকাল বেলা খালি পেটে গরম পানিতে লেবু মিশিয়ে খেতে, এটি চর্বি গলিয়ে ডিটক্সিফিকেশনে সাহায্য করে। আপনি উপকারের আশায় তাই করলেন। কিন্তু কদিন যাওয়ার পর দেখতে পাবেন, নানারকম শারীরিক সমস্যা দেখা দিচ্ছে। গ্যাস, অ্যাসিডিটি, ক্ষুধামন্দা, বমি ইত্যাদি। লেবু আমাদের শরীরের জন্য বেশ ভালো। লেবুর মধ্যে থাকা ভিটামিন সি ত্বক ভালো রাখে, দাঁত ও হাড়ের গঠনে সাহায্য করে কিন্তু অতিরিক্ত খেলে নানারকম শারীরিক সমস্যা দেখা যায়। চলুন জেনে নেই গরম পানিতে লেবু মিশিয়ে খেলে কোন সমস্যাগুলো হতে পারে-

সম্প্রতি ব্রাজিলের একটি গবেষণা পত্রে বলা হয়েছে সফট ড্রিংক খেলে দাঁতের যে সমস্যা হয় লেবুর থেকেও ঠিক একই সমস্যা হয়। এছাড়াও যারা প্রতিদিন সকালে উঠে লেবুপানি খান তারা যদি দিনে অন্তত দুইবার ব্রাশ করেন তাহলে দাঁতের সমস্যা অনেক কম হয়।

খালি পেটে লেবু খেলে আমাদের শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় উৎসেচক পেপসিন ভেঙে যায়। পেপসিন আমাদের হজমে সাহায্য করে। মূলত প্রোটিন হজম করায়। এদিকে লেবুর মধ্যে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড পেপসিনকে ভেঙে ক্ষতিকর এনজাইম তৈরি করে। ফলে খাবার ঠিকমতো হজম হয় না।

ভিটামিন সি শরীরের জন্য প্রয়োজন। কিন্তু অতিরিক্তও ভালো নয়। অতিরিক্ত লেবু বা লেবুর রস খেলে সেখান থেকে অ্যাসিড তো হবেই, সেই সঙ্গে বমি বমি ভাব বা বমি হতেই পারে। যেখান থেকে পরবর্তীকালে গুরুতর সমস্যা দেখা দেয়। শুধুমাত্র লেবুপানি নয়, যেকোনো ডিটক্স ডায়েট ড্রিংক থেকেই এই সমস্যা হতে পারে।

গরমপানিতে লেবু যেহেতু ডিটক্সিফিকেশনে সাহায্য করে তাই বারে বারে বাথরুমে যাওয়ার প্রয়োজন হয়। এছাড়াও পেট ফেঁপে যাওয়া, শরীর শুকনো হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দেয়। বারবার প্রস্রাব হওয়ার ফলে ইলেকট্রোলাইটস ও সোডিয়াম দেহের থেকে বেরিয়ে যায়।

অতিরিক্ত ভিটামিন সি রক্তে আয়রনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়, আয়রন প্রয়োজন। কিন্তু পরিমাণ বেশি হলে তা ক্ষতিকর। যার ফলে অভ্যন্তরীণ অঙ্গ প্রত্যঙ্গের ক্ষতি হয়।

সাইট্রাস মাইগ্রেন বাড়ায়। যাদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে তাদের লেবু জাতীয় ফল না খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

প্রতিদিন কোনো গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ খেলে লেবু বা সাইট্রিক জাতীয় ফল এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। এছাড়াও ক্যালসিয়ামের ওষুধ খেলে সঙ্গে লেবু খাবেন না, এতে হিতে বিপরীত হবে।



আমার বার্তা/২৫ ডিসেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন