শিরোনাম :

  • রাজপথে তৎপর পুলিশ ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বিদেশি নাগরিকদের ভিসা অন অ্যারাইভাল বন্ধ করোনার সংক্রমণ ঠেকাবে ত্রিফলা, দাবি ভারতীয় বিজ্ঞানীর সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত ইসরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী
সপ্তাহে তিনদিন গ্রিন টি খেলে আয়ু বাড়বে এক বছর!
আমার বার্তা ডেস্ক :
১৩ জানুয়ারি, ২০২০ ১২:০০:৫৬
প্রিন্টঅ-অ+


গবেষণায় দেখা গেছে যে, সপ্তাহে তিনবার গ্রিন টি পান করলে তা আমাদের দীর্ঘজীবী হতে এবং হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোক হওয়ার ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট হৃদযন্ত্রকে রক্ষা করার পাশাপাশি আমাদের আরও দীর্ঘ সময়ের জন্য সুস্থ থাকতে সহায়তা করতে পারে।

গবেষকরা চীনে এক লক্ষেরও বেশি মানুষের উপর জরিপ শেষে দেখতে পান, নিয়মিত গ্রিন টি পানকারীরা যারা গ্রিন টি পান করেন না তাদের তুলনায় গড়ে ১.২৬ বছর বেশি বাঁচেন।

যারা গ্রিন টি পান করেননি, তারা ১.৪ বছর পরে মারাত্মক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিল। তবে লিকার চা পানকারীদের জন্য কোনো উল্লেখযোগ্য সুবিধা পরিলক্ষিত হয়নি, বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে গ্রিন টিই একমাত্র চা যেটি সুস্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে প্রভাব রাখতে পেরেছিল।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই গবেষণা মানুষকে সুস্বাস্থ্যের জন্য গ্রিন টিতে অভ্যাস্ত করার পক্ষে যথেষ্ট শক্তিশালী নয়। এমনকী এটি নিয়মিত পান করলেও তা অস্বাস্থ্যকর পানীয় পান করা থেকে বিরত রাখতে পারবে না।

যদিও এই গবেষণায় গ্রিন টিতে একচেটিয়াভাবে নজর দেওয়া হয়নি তবে গবেষণার বেশিরভাগ লোকই এই গ্রিন টি পান করেছেন। অবশ্য গবেষকরা লিকার চা পান করে এমন লোকদের জন্য একই স্বাস্থ্য উপকারিতা দেখতে পান নি, যা কিনা ইংল্যান্ডে জনপ্রিয়।

বেইজিংয়ের চাইনিজ একাডেমি অফ মেডিকেল সায়েন্সেসের এক গবেষণায় ১০০,৯০২ জনের স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে যাদের কখনও ক্যান্সার, হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোক হয়নি। গবেষকরা প্রায় সাত বছর ধরে তাদের স্বাস্থ্যের উপর নজর রাখে এবং কতবার চা পান করে তা রেকর্ড করে।

যারা সপ্তাতে তিন বা তার চেয়েও বেশিবার চা পান করেছেন, তাদেরকেই নিয়মিত চা পানকারী হিসেবে গণনা করা হয়েছে। যারা এর চেয়ে কমবার চা পান করেছেন, তাদেরকে গণনার বাইরে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে মাত্র আট শতাংশ মানুষই লিকার চা পান করেছেন। বাকিরা গ্রিন টি-র ভক্ত, যদিও গবেষণার বিষয়বস্তু ছিল চা পানকারী ব্যক্তিরা, গ্রিন টি না।



আমার বার্তা/১৩ জানুয়ারি ২০২০/জহির



 


আরো পড়ুন