শিরোনাম :

  • আইসিইউ যাচ্ছে প্রান্তিক পর্যায়েও ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা মামলার ১৬ জন এখনো কোথায়? রোনালদোর সতীর্থকে বার্সেলোনায় চান মেসি র‍্যাব-পুলিশ সদরের ঊর্ধ্বতন তিন কর্মকর্তাকে বদলি রাজীবের মৃত্যু : তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ২৬ সেপ্টেম্বর
মোবাইল কোর্টে বিশেষ পুলিশের প্রয়োজন নেই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক :
১৮ জুলাই, ২০১৯ ১২:৪৪:১৭
প্রিন্টঅ-অ+


জেলা প্রশাসকরা তাদের মোবাইল কোর্টের পরিধি বাড়ানোর জন্য সার্বক্ষণিক বিশেষায়িত একটি পুলিশ ফোর্স চেয়েছেন, এ বিষয়ে কিছু আলোচনা হয়েছে কি না- জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘মোবাইল কোর্টের পরিধি যেটা প্রয়োজন সেটা অলরেডি হয়ে গেছে। মাদক নিয়ন্ত্রণ আইন বলবৎ হয়েছে। সেজন্য মোবাইল কোর্টের আওতায় যতটুকু আনা হয়েছে, সেটা নিয়েও কাজ হচ্ছে। বিশেষ পুলিশতো প্রয়োজন নেই। কারণ, পুলিশরা সবসময় জেলা প্রশাসকদের সহযোগিতা করেন।

তিনি বলেন, ‘ডিসিদের নির্দেশনায় পুলিশ সব জায়গায় কাজ করছেন। বিজিবি, আনসারসহ আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী সবসময় একসঙ্গে বসে কাজ করেন।’

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনের পঞ্চম দিনের দ্বিতীয় অধিবেশন শেষ ওই প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

জননিরাপত্তা বিভাগ ও সুরক্ষা সেবা বিভাগের সঙ্গে জেলা প্রশাসকদের এ অধিবেশন হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এতে সভাপতিত্ব করেন।

অধিবেশন শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘ডিসিরা প্রতি বছরই প্রধানমন্ত্রীর দিক-নির্দেশনা নেন এবং তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা জানান। আমাদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিষয়ে তারা কী ধরনের অসুবিধা ভোগ করছেন এবং কী ধরনের পদক্ষেপ নিলে তারা আরও স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করতে পারবেন, আজকে সে বিষয় নিয়েই আলোচনা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘তারা (ডিসিরা) যেগুলো বলেছেন, সবগুলোই যুক্তিসঙ্গত। ইতোমধ্যেই এগুলো আমরা বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। যেগুলো বাকি রয়েছে, সেগুলোও আমরা করে ফেলব। প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী ওয়াদা আমার গ্রাম আমার শহর এবং অন্যান্য কার্যক্রম জেলা প্রশাসকরা করছেন, সেগুলো যেন অব্যাহত রাখেন, সে বিষয়ে বলা হয়েছে।

‘বিশেষ করে মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী যে জিরো টলারেন্সের কথা বলেছেন, সেই জায়গায় তারা কাজ করবেন। আবার সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ যেভাবে আমরা দমন করে চলেছি, সে বিষয়ে তারা খেয়াল রাখেবেন। যাতে করে আবার কোনো সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, চরমপন্থী- এদের আবির্ভাব না ঘটে।’

তিনি বলেন, ‘মাদক নিয়ে আমাদের যে অভিযানটা চলছে, এ অভিযানের সঙ্গে সঙ্গে ডিসিদের জনসচেতনতা বাড়ানোর জন্য বলা হয়েছে। এ জন্য তারা স্কুল, ছাত্র-শিক্ষক জনতা সব পেশাজীবীকে এ সংগ্রামে সম্পৃক্ত করবেন ,সে আহ্বান রেখেছি।’

নারী ও শিশু নির্যাতন নিয়ে কোনো কথা হয়েছে কি না- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘আজকে এ বিষয়ে আলোচনা হয়নি। তবে এ বিষয়ে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী সবসময় সচল রয়েছে।’



আমার বার্তা/১৮ জুলাই ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন