শিরোনাম :

  • রাজধানীতে বস্তায় মিলল শিশুর মরদেহ মঙ্গলবার নেপাল যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি কমনওয়েলথ মেলায় প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা সব সতর্ক সংকেত নামলো, ফিরতে পারবেন পর্যটকরা লতিফ সিদ্দকীর জামিন স্থগিত
অস্ত্র চোরাচালানে নেয়া হয় নদীতে গোসলের কৌশল
নিজস্ব প্রতিবেদক :
০৫ নভেম্বর, ২০১৯ ১৫:০৮:০১
প্রিন্টঅ-অ+


রাজধানীর মিরপুর থেকে চারটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ মো. হাফিজুর রহমান নামে এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার রাতে তাকে গ্রেফতার করে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া ও পাবলিক রিলেসন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান।

ডিএমপি জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে মিরপুর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে অস্ত্র সরবরাহ ও ব্যবসা করত। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে চারটি অস্ত্র ও ১৭টি অ্যামুনেশন্স জব্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংসবাদ সম্মেলনে ডিএমপি গোয়েন্দা উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান বলেন, গ্রেফতারকৃত মো হাফিজুর রহমান সহযোগী মো. হাবিবুর রহমান বিশ্বাস ও জিল্লুরের মাধ্যমে ভারত হতে বেনাপোল দিয়ে চোরাই পথে অবৈধ অস্ত্র ও গুলি আমদানি করে।

তিনি জানান, অস্ত্র ও গুলি প্রথমে বিহার থেকে কলকাতার অস্ত্র ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায় গোপন স্থানে রাখে। পরবর্তীতে বাংলাদেশি অস্ত্র ব্যবসায়ীদের প্রয়োজন মত ও দর কষাকষি চূড়ান্ত হলে ভারতে কলকতার উত্তর চব্বিশ পরগনা আংরাইল সীমান্তবর্তী গ্রাম ও বাংলাদেশের বেনাপোলে পুটখালী গ্রামের নদীর তীরে গোসল করার কৌশলে বাংলাদেশের সীমান্তে নিয়ে আসে। তারপর সুযোগ বুঝে এবং প্রয়োজন অনুযায়ী উক্ত অস্ত্র সীমান্তের গোপন স্থান হতে বের করে ঢাকাসহ অন্য স্থানে পৌঁছে দেয়।

ডিসি মশিউর রহমান বলেন, তাদের অস্ত্র জঙ্গি গোষ্ঠী, রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা সৃষ্টিসহ নানা ধরনের নাশকতামূলক বা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে ব্যবহার হয়ে থাকে।

এ বিষয়ে মিরপুর মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।



আমার বার্তা/০৫ নভেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন