শিরোনাম :

  • রোকেয়ার আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে নারীরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে : প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেল : রাষ্ট্রপতি বেগম রোকেয়া দিবস আজ উগ্রবাদবিরোধী জাতীয় সম্মেলন শুরু হচ্ছে আজ
ভারত থেকে টুথপেস্ট আসবে কেন : কৃষিমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক :
১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:৫৫:৫৯
প্রিন্টঅ-অ+


কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুল রাজ্জাক বলেছেন, ‘১৬ কোটির বেশি মানুষ বাংলাদেশে। এই মানুষদের জন্য টুথপেস্ট কোলগেট আসে ভারত থেকে। ভারত থেকে কেন এই টুথপেস্ট আসবে? বাংলাদেশে টুথপেস্ট তৈরি করতে পারে না কোলগেট? তারা কেন এখানে কারখানা করে না, কেন বিনিয়োগ করবে না?’

রোববার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘উন্নয়ন মেলা-২০১৯’-এ এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

দেশে অনেক পণ্য প্রয়োজনের তুলনায় বেশি উৎপাদন হলেও প্রক্রিয়াজাতকরণের আধুনিক প্রযুক্তি নেই উল্লেখ করে আব্দুল রাজ্জাক বলেন, ‘কৃষিনির্ভর এরকম অনেক পণ্য মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড থেকে বাংলাদেশে আসছে। প্রথমত আমাদের মার্কেটের আকার বাড়াতে হবে, দ্বিতীয়ত প্রযুক্তি আহরণ করে প্রযুক্তিভিত্তিক অর্থনীতি গড়তে হবে। আধুনিক প্রযুক্তি শুধু উৎপাদনে না, প্রক্রিয়াজাতকরণেও ব্যবহার করতে হবে।’

ফ্রান্সের একটি প্রতিষ্ঠান আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে পণ্য আমদানি করে জেলি বানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বিক্রি করছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, সেটা বাংলাদেশ কীভাবে করতে পারবে? সেখানে কৃষি মন্ত্রণালয়, এর সচিব ও মন্ত্রী হিসেবে আমি, গবেষণা প্রতিষ্ঠান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা রাখতে হবে।

৬০ এর দশকে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলেন মন্ত্রী, তখন থেকেই ফুড টেকনোলজি বিভাগ দেখছেন তিনি।

কৃষিমন্ত্রীর প্রশ্ন, ‘এ পর্যন্ত যারা ফুড টেকনোলজি থেকে বেরিয়ে এসেছে, তারা কয়টা খাবার ফুড টেকনোলজির মাধ্যমে আমাদের জন্য করতে পেরেছে? কয়টা আজকে বাজারজাত হচ্ছে? যেটার কৃতিত্ব কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে যেতে পারে।’

সেমিনারে অংশ নেয়ার আগে উন্নয়ন মেলা ঘুরে দেখেন কৃষিমন্ত্রী। তখন তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে যাওয়ার জন্য আমাদের আরও আধুনিক পণ্য তৈরি করতে হবে। শুধু গামছা বানিয়ে, চাদর বানিয়ে; এই মানের চাদর, এই মানের গামছা দিয়ে হবে না। আন্তর্জাতিক মানের চাদর, কার্পেট, বেডশিট-এগুলো করতে হবে। এগুলোর জন্য আমাদের উদ্যোগ দরকার।’

‘নিরাপদ খাদ্য, এটা আরেকটা বিষয়। দেশে শুটকি মাছ, কুচিয়া চাষ করা হচ্ছে–এগুলো নিরাপদ কি না, কীভাবে হচ্ছে? কৃষির বিভিন্ন পণ্য, এগুলো যদি নিরাপদ না হয়, স্বাস্থ্যসম্মত না হয়, তাহলে পশ্চিমা বিশ্বে বাংলাদেশ যেতে পারবে না।’

উৎপাদন প্রক্রিয়াজাতকরণ, বাজারজাতকরণ – এগুলোর ব্যাপারে আরও উদ্যোগ দরকার বলেও মনে করেন কৃষিমন্ত্রী।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান, পি কে এস এফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মঈনুদ্দিন আব্দুল্লাহসহ অনেকে।



আমার বার্তা/১৭ নভেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন