শিরোনাম :

  • ঢাকায় বাড়তে পারে তাপমাত্রা করোনার ছোবলে এবার চলে গেলেন এসআই মোশাররফ সপ্তাহে তিন দিন ছুটির বিধান আসছে নিউজিল্যান্ডে পেরুতে একদিনেই আক্রান্ত প্রায় ৩ হাজার
চাল চোরদের লাল কার্ড প্রদর্শন
নিজস্ব প্রতিবেদক :
১৪ মে, ২০২০ ১৪:৩৩:১৯
প্রিন্টঅ-অ+


করোনা ভাইরাস মহামারিতে যে সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতা এবং জনপ্রতিনিধিরা ত্রাণের চাল চুরি করছেন, সমাজের সর্বস্তর থেকে তাদের লাল কার্ড প্রদর্শনের আহ্বান জানিয়েছেন ‘দেশ বাচাও, মানুষ বাঁচাও আন্দোলন’ নামের একটি সংগঠন।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সংগঠনটির সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন এ আহ্বান জানান।

রিপন বলেন, খেলার মাঠে যেমন কোনো খেলোয়ার অপরাধ করলে তাকে লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেয়া হয়, তেমনি এই করোনা পরিস্থিতিতে যেসব জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা সরকারের ত্রাণ কার্যক্রমের চাল আত্মসাত করছে, চুরি করছে তাদের আজকে এই মূহুর্তে আমরা লাল কার্ড দেখাচ্ছি। তাদের আর রাজনীতি করার অধিকার নেই, তাদের জনপ্রতিনিধি থাকার অধিকার নেই। তাদের সামাজিকভাবে বয়কট করুন। সমাজের সর্বস্তর থেকে তাদের লাল কার্ড দেখান।

রিপন বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে দেখা যাচ্ছে যত করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে, পাল্লা দিয়ে তার চেয়ে বেশি চাল চোর ধরা পড়ছে এবং দূর্ভাগ্যজনক হলো চোরেরা ক্ষমতাসীন দলেরই লোক! এসব রাষ্ট্র ব্যবস্থা থেকে বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা নয়, বরং রাষ্ট্রব্যবস্থারই অংশ। আর এ কারণেই কিছুদিন আগে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা রাষ্ট্র মেরামতের দাবি করেছিল।

রিপন আরও বলেন, মার্কিন নৌবাহিনী বিষয়ক ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী থমাস মেডলি নৌবাহিনীতে যথাযথ নিরাপত্তা দিতে না পারায় পদত্যাগ করেছেন। জার্মানির এক প্রাদেশিক অর্থমন্ত্রী করোনা পরবর্তী অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের আশঙ্কায় পদত্যাগ করেছেন। আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ডা. লিও ভারাদকার করোনা মহামারি মোকাবিলায় চিকিৎসা পেশায় ফিরেছেন। পর্তুগালের প্রধানমন্ত্রী নিজ কাঁধে খাদ্য সামগ্রী পিয়ে জনগণের মধ্যে বিলিয়েছেন। বৃটেনের প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রী করোনা থেকে নাগরিকদের রক্ষায় সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে নিজেরাও আক্রান্ত হয়েছেন। বিশ্বের মানবিক সরকারগুলো নিজেদের নাগরিকদের করোনার ভয়াল থাবা থেকে বাঁচানোর জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালানোর পরও মৃত্যুর মিছিল থামছেই না। আর আমরা প্রায় ৩ মাস সময় পাওয়ার পরেও পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নিতে পারলাম না। জানি কাজটি কঠিন, তবে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সমন্বিত চেষ্টা চালানো গেলে, বিমানবন্দর, স্থলবন্দর, নৌবন্দরগুলো ভালোভাবে চেক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারলে পরিস্থিতি আরও নিয়ন্ত্রণে থাকতো। যা ভুল হওয়ার হয়ে গেছে , আর নয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ মেনে দ্রুততম সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক নাগরিকদের করোনা পরীক্ষার আওতায় এনে আক্রান্তদের ভেন্টিলেশন, প্রয়োজনীয় আইসিইউয়ের সংখ্যা দ্রুত বাড়িয়ে সর্বাধুনিক চিকিৎসার মাধ্যমে জীবন বাঁচাতে মরণপণ চেষ্টা চালিয়ে মৃত্যুর মিছিল ছোট করতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর ২০১৯ সালের তথ্য মতে এদেশের সোয়া তিন কোটি মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করে। দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করা কর্মহীন লোকজনকে ঘরে আটকাতে হলে তাদের হাতে দু’মুঠো অন্ন তুলে দিতে হবে এবং সেটা রাষ্ট্রীয়ভাবেই। ব্যক্তি বা সমাজের পক্ষে এ বিশাল জনগোষ্ঠীর ক্ষুধা নিবারণ করা কতটুকুই বা সম্ভব? ব্যক্তি, সমাজ ও সংগঠনের অনেকেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এমনি অবস্থায় বিশাল ক্ষুধার্ত জনগোষ্ঠী ক্ষুধার জ্বালায় রাস্তায় নেমে আসাটাই স্বাভাবিক। করোনা আর ক্ষুধা দু’য়ে মিলে যেন না খায় আমাদের।

দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মহাসচিব মো. আবুল খায়ের, আদর্শ নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি মো. মাহমুদুল হাসান, সংগঠনের সভাপতি অলিউর রহমান অলি, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. জিয়াউল হক মোস্তফা গাজী দুদু, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট শফি নেওয়াজ নাসির, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুর রহিম, মো. জুয়েল রানা প্রমুখ।



আমার বার্তা/১৪ মে ২০২০/জহির





 


আরো পড়ুন