শিরোনাম :

  • করোনায় মোট মৃত্যুর চেয়ে এক মাসে আত্মহত্যার সংখ্যা বেশি জাপানে ফ্রান্সে পুলিশি বর্বরতার প্রতিবাদে বিক্ষোভে সহিংসতা ৪৩ শ্রমিককে নাইজেরিয়ায় গলা কেটে হত্যা হালাল ভালোবাসা এত সুন্দর আগে ভাবিনি : সানা খান
নভেম্বরে শুরু হবে বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণকাজ
নিজস্ব প্রতিবেদক:
২৭ অক্টোবর, ২০২০ ১৩:৩৫:১৫
প্রিন্টঅ-অ+


নভেম্বরে শুরু হতে যাচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ রেল সেতুর নির্মাণকাজ। বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নামে ওই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের যোগাযোগ ও অর্থনীতিতে ব্যাপক উন্নয়নের আশাবাদ রেলমন্ত্রীর। ২০২৫ সালে উদ্বোধনের আশা প্রকল্প পরিচালকের। তবে ব্যয় ও বাস্তবায়ন সময়সীমা যেন না বাড়ে সে জন্য সতর্ক থাকার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

প্রতিদিন ২২টি ট্রেন চলাচলের কথা থাকলেও বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর দিয়ে পার হচ্ছে ৪৪টি ট্রেন। এতে সেতু যেমন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে তেমনি প্রতিদিন কমছে ট্রেনের গতি।

এমতাবস্থায় বর্তমান বঙ্গবন্ধু সেতুর পাশে সিরাজগঞ্জে শুধু রেলপথের জন্য আলাদা একটি সেতু নির্মাণের প্রকল্প নিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। ৫০টি স্প্যানসংবলিত ৪.৮ কিমি এই সেতুর দুই প্রান্তে নির্মাণ করা হবে ৩০ কিমি রেল লাইন। ৯ হাজার ৭৩৪ কোটি টাকা ব্যয় ধরে ২০১৬ সালে প্রকল্প নেয়া হয়, বর্তমানে সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছ ১৬ হাজার ৭৮১ কোটি টাকা। সবকিছু ঠিক থাকলে ২০২৫ সালে সেতু উদ্বোধনের আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বঙ্গবন্ধু দ্বিতীয় রেল সেতু প্রকল্পের পরিচালক কামরুল আহসান।

১০০ কিমি গতিতে প্রতিদিন ১০০টি ট্রেন চলাচলের সক্ষমতায় তৈরি হচ্ছে এ সেতু। থাকবে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচলের ব্যবস্থা। এতে যোগাযোগ ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের আশাবাদী রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন।

প্রকল্প বাস্তবায়নে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ড. শামসুল হক, তিনি বলছেন অহেতুক যাতে ব্যয় আর বাস্তবায়ন সময়সীমা না বাড়ে সে জন্য বাড়াতে হবে কারিগরি সক্ষমতা।

তিনি আরও বলেন, মনিটরিংয়ে যে চেন অব কমান্ডটা থাকার কথা সেটা একাকার হয়ে যাচ্ছে। প্রত্যেকেই প্রকল্পের সুবিধাভোগী হয়ে যাচ্ছে। এর ফলে নজরদারিটা হচ্ছে না তাই প্রকল্পগুলো বিলম্বিত হচ্ছে।

নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের কথা রয়েছে।



  আমার বার্তা/২‌৭ অক্টোবর ২০২০/সাবাব


আরো পড়ুন