শিরোনাম :

  • আজ প্রধানমন্ত্রী ৭ বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করবেন তিনটি সংসদীয় স্থায়ী কমিটি পুনর্গঠন বিমানে এল ২২৫টি অস্ট্রেলিয়ান গরু সৌদি থেকে ফিরছেন নির্যাতনের শিকার সেই সুমি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের নতুন সভাপতি ওয়াটসন
দেশের গ্যাস রফতানির সর্বনাশা নীতি জনবিরোধী : ন্যাপ
নিজস্ব প্রতিবেদক :
০৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:২০:৩২
প্রিন্টঅ-অ+


গ্যাস রফতানির সুযোগ ও দাম বাড়িয়ে নতুন পিএসসির (প্রোডাকশন শেয়ারিং কন্ট্রাক্ট) সংবাদে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া। তারা বলেছেন, একদিকে গ্যাস সঙ্কটের কথা বলে এলএনজি আমদানি আর অন্যদিকে দেশের গ্যাস রফতানির সর্বনাশা নীতি জনবিরোধী। এ ধরনের সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বাংলাদেশের জন্য সৃষ্টি করা হচ্ছে মহাবিপর্যয়।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, সমুদ্রের গ্যাস উত্তোলনে যে পিএসসি-২০১৯ প্রণয়ন করা হয়েছে, তাতে বিদেশি কোম্পানিকে রফতানির সুযোগ করে দেয়া হয়েছে, যা দেশের স্বার্থের পরিপন্থী। এর ফলে কার্যত গ্যাসের দাম পড়বে ১০ মার্কিন ডলার। সরকার সমুদ্রের গ্যাস রফতানির সুযোগ রেখে যে পিএসসি করল, তাতে ভবিষ্যতে নিজেদের গ্যাস বিদেশিদের কাছে তুলে দেয়ার পথ প্রশস্ত হবে।

ন্যাপ নেতাদের ভাষ্য, সরকারের এসব উদ্যোগে বিভিন্ন বিদেশি কোম্পানি আর তাদের দেশি কমিশনভোগীদের পকেট ভারীর ব্যবস্থা হচ্ছে, যেখানে দেশের জনগণের জন্য সৃষ্টি করা হচ্ছে মহাবিপর্যয়। নিজেদের গ্যাসসম্পদ যথাযথভাবে উত্তোলন ও দেশের কাজে শতভাগ ব্যবহারের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিলে দেশে জ্বালানি ও বিদ্যুৎখাতে সুলভ টেকসই সমাধান সম্ভব।

তারা বলেন, একদিকে গ্যাস সঙ্কটের কথা বলে ব্যয়বহুল এলএনজি আমদানি, রামপালসহ দেশবিনাশী কয়লা ও পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন, অন্যদিকে দেশের গ্যাসসম্পদ বিদেশে রফতানি করার সিদ্ধান্ত জনগণ কোনোভাবেই মেনে নেবে না।

জনমত উপেক্ষা করে উচ্চমূল্যে এলএনজি (লিকুইড ন্যাচারাল গ্যাস) আমদানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ ন্যাপের।

অবিলম্বে যেকোনো মূল্যে গ্যাস রফতানির সিদ্ধান্ত বাতিল, শতভাগ মালিকানা নিশ্চিত করে সমুদ্র এবং স্থলভাগের গ্যাস উত্তোলনে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ ও দেশের স্বার্থে গ্যাস ব্যবহারের দাবি করেন ন্যাপ নেতারা।



আমার বার্তা/০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন