শিরোনাম :

  • আজ শুরু হচ্ছে মহাকালের ‘বাংলা নাট্যোৎসব’ সোনাদিয়ায় শিল্পকারখানা স্থাপন না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিক্রিই হলেন না সাকিব-গেইল-মালিঙ্গারা রাজধানীতে আনসার আল ইসলামের চার সদস্য গ্রেফতার কালিদাস কর্মকারের মরদেহে শ্রদ্ধা চারুকলায়
দেশবাসী প্রধানমন্ত্রীর দিকে তাকিয়ে : জি এম কাদের
নিজস্ব প্রতিবেদক :
২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:১৮:৫৬
প্রিন্টঅ-অ+


দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর পদক্ষেপের দিকে দেশবাসী তাকিয়ে আছেন বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জি এম কাদের।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে পার্টির প্রতিষ্ঠতা চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ-এর স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন। বাংলাদেশ জনতা লীগ (বিজেএল) এর ব্যানারে এ সভা হয়।

জি এম কাদের বলেন, দুর্নীতি মুক্ত সমাজ গড়তে একটা নেতৃত্ব দরকার। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী কিছু পদক্ষেপ নিয়েছেন। দেশবাসী তার দিকে তাকিয়ে আছেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে উনি আগামীতে কী ব্যবস্থা নেন।

তিনি বলেন, 'আমি সংসদে বলেছি, আপনার কাছে জনগণের অনেক কিছু প্রত্যাশা করেন। কারণ আপনি অনেক শক্তিশালী একজন নেত্রী। তার মত এত বেশি শক্তিশালী নেতৃত্ব নিয়ে ইতোপূর্বে কোন সরকার প্রধান ক্ষমতায় আসেনি।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কাছে আমরা ঋণী, এটা স্বীকার করি। তার সুযোগ্য কন্যা হিসেবে মানুষের অনেক প্রত্যাশা আছে তার কাছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দেশ শাসন করছেন। দুর্নীতির বিরুদ্ধে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিচ্ছেন। আমাদের প্রত্যাশা এটি সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করবেন। কারণ দেশ ও জাতি দুর্নীতিমুক্ত সমাজ দেখতে চায়।

১৯৯০ এ হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পতন হয়নি দাবি করে জাতীয় পার্টির নতুন এ চেয়ারম্যান বলেন, ওই সময় এরশাদ স্থান পরিবর্তন করেছে। সে ক্ষমতা ছেড়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে মিশে গেছে। শেষ পর্যন্ত তিনি মানুষের অন্তরে চলে গেছে। যার প্রমাণ পেয়েছি তার অসুস্থ থাকাকালিন সময়ে ও মৃত্যুর পরে। তার জানাজায় মানুষের ঢল নামে।

বিজেএল-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ওসমান গণি বেলালের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট শেখ

শহিদুজ্জামান।

সভায় আলোচকরা বলেন, ৯০-এ গণঅভ্যুত্থানের পর একটা গণতন্ত্র পেয়েছি। এমন গণতন্ত্র পেয়েছি যেখানে কথা বলা যায় না। যেখানে মানুষ গুম হয়ে যাচ্ছে, মাদক দুর্নীতিতে ভরে গেছে। আমরা এমন গণতন্ত্র চাইনি।

তারা বলেন, আওয়ামী লীগের অফিসে পাশে ক্যাসিনো চলে। ১২ বছরেরও চোখে পড়েনি। আপনারা কী এতদিন কালো চশমা পড়ে ছিলেন। এ দায় বর্তমান সরকার এড়াতে পারে না।



আমার বার্তা/২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন