শিরোনাম :

  • দেশের ১১ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা আগামী সপ্তাহে ভারতে ভেন্টিলেটর পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র বিকেলে ১১০ কিমি বেগে মুম্বাইয়ে আঘাত হানবে ‘নিসর্গ’ ভারতে করোনায় আক্রান্ত ২ লাখ ছাড়াল
ওয়ার্নার-রশিদের নৈপুণ্যে জয়ে ফিরল হায়দরাবাদ
স্পোর্টস ডেস্ক :
৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ০৯:৫১:১০
প্রিন্টঅ-অ+


ব্যাটিংয়ে আলো ছড়ান ডেভিড ওয়ার্নার, বোলিংয়ে তা আরও উজ্জ্বল করেন রশিদ খান। এ দুইয়ের যুগলবন্দীতে পরপর দুই ম্যাচ হারের পর জয়ের দেখা পেয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। কিংস এলেভেন পাঞ্জাবকে তারা হারিয়েছে ৪৫ রানের বড় ব্যবধানে।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ওয়ার্নারের ৮১ রানের ইনিংসে ভর করে ২১২ রানের বড় সংগ্রহ পায় হায়দরাবাদ। জবাবে লোকেশ রাহুল ৭৯ রান করলেও রশিদ খান ও খলিল আহমেদদের বোলিংয়ের বিপক্ষে পাঞ্জাবের বাকি ব্যাটসম্যানরা দাঁড়াতেই পারেনি। তাদের ইনিংস থেমে যায় ১৬৭ রানে।

রান তাড়া করতে নেমে ক্রিস গেইল সাজঘরে ফিরে যান অল্পেই। একটি চার মেরে আউট হন ঠিক ৪ রানেই। এছাড়া মায়াঙ্ক আগারওয়াল ১৮ বলে ২৭, নিকলাস পুরান ১০ বলে ২১ ও ডেভিড মিলার ১১ বলে ১১ রান করে আউট হয়ে গেলে সঙ্গীর অভাবে ভুগেন রাহুল।

শেষপর্যন্ত ১৯তম ওভারে সাজঘরে ফিরে যান তিনিও। আউট হওয়ার আগে ৪ চার ও ৫ ছয়ের মারে ৫৬ বলে ৭৯ রান করেন রাহুল। হায়দরাবাদের পক্ষে বল হাতে ৩টি করে উইকেট নেন খলিল আহমেদ ও রশিদ খান, ২ উইকেট যায় সন্দ্বীপ শর্মার ঝুলিতে।

টসের সময়ই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন জানিয়েছিলেন চলতি আইপিএলে এটিই শেষ ম্যাচ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের। আর নিজের শেষ ইনিংসটিকে কি দারুণভাবেই না সাজিয়ে রাখলেন বাঁহাতি এ ওপেনার।

জাতীয় দলের ডাকে দেশে ফেরার আগে চলতি আইপিএলে নিজের শেষ ইনিংসে ওয়ার্নার খেলেছেন ৫৬ বলে ৮১ রানের ঝড়ো ইনিংস। সঙ্গে ঋদ্ধিমান সাহা, মনিশ পান্ডেরা ছোট কিন্তু কার্যকরী ইনিংস খেলায় ২১২ রানের বিশাল সংগ্রহ পেয়েছে হায়দরাবাদ।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম পাওয়ার প্লে'তেই ৭৭ রান যোগ করেন দুই ওপেনার ঋদ্ধিমান সাহা এবং ডেভিড ওয়ার্নার। তার আগে মাত্র ২৪ বলে দলীয় পঞ্চাশ পূরণ করে এবারের আসরে দ্রুততম দলীয় ফিফটির রেকর্ডটিও গড়েন এ দুজন।

ইনিংসের সপ্তম ওভারের দ্বিতীয় বলে সাজঘরে ফেরেন ঋদ্ধিমান। আউট হওয়ার আগে খেলেন ৩ চার ও ১ ছয়ের মারে ১৩ বলে ২৮ রানের ইনিংস। দ্বিতীয় উইকেটে জুটি বাঁধেন মনিশ এবং ওয়ার্নার। দুজন মিলে যোগ করেন ৫৫ বলে ৮২ রান।

ইনিংসের ১৬তম ওভারে তিন বলের ব্যবধানে দুজনকেই ফেরান পাঞ্জাব অধিনায়ক রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ঋদ্ধিমানের মতোই ৩ চার ও ১ ছয় হাঁকান মনিশ, খেলেন ২৫ বলে ৩৬ রানের ইনিংস।

অন্যদিকে চলতি আসরে ১২তমবারের মতো ব্যাট করতে নেমে নবম পঞ্চাশোর্ধ রানের ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার। আউট হওয়ার আগে ৭ চার ও ২ ছয়ের মারে করেন ৮১ রান। শেষদিকে মোহাম্মদ নবীর ১০ বলে ২০ এবং উইলিয়ামসনের ৭ বলে ১৪ রানের ইনিংসে ৬ উইকেটে ২১২ রান পর্যন্ত পৌঁছায় হায়দরাবাদের ইনিংস।

পাঞ্জাবের পক্ষে বল হাতে ২টি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ শামী এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন। মুরুগান অশ্বিন এবং আরশদ্বীপ সিংয়ের ঝুলিতে যায় ১টি করে উইকেট।



আমার বার্তা/৩০ এপ্রিল ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন