শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
চেন্নাইকে ১ রানে হারিয়ে আইপিএলের শিরোপা জিতল মুম্বাই
স্পোর্টস ডেস্ক :
১৩ মে, ২০১৯ ১০:২৩:৩৫
প্রিন্টঅ-অ+


আইপিএলের দ্বাদশ আসরের শিরোপা ঘরে তুলতে চেন্নাইয়ের সামনে ছিল ছোট লক্ষ্য। কিন্তু স্বল্প পুঁজি নিয়েও দারুণ লড়াই করে মুম্বাই। চরম নাটকীয়তার ম্যাচের ফল নির্ধারণ হয় শেষ ওভারের শেষ বলে।

১৫০ রানের বাঁধা টপকে জয়ের জন্য শেষ বলে ২ রান লাগত চেন্নাইয়ের। বোলিংয়ে ছিলেন লাসিথ মালিঙ্গা, ব্যাটিংয়ে শার্দুল ঠাকুর। আগের বলে ২ রান নেওয়া শার্দুলের আত্মবিশ্বাস ছিল তুঙ্গে। কিন্তু মালিঙ্গার শেষ কারিশমা তখনও বাকি ছিল। ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে স্লোয়ার ইয়র্কার বেছে নেন মালিঙ্গা। তাতেই বাজিমাত। এলবিডব্লিউ হয়ে আউট শার্দুল। ১ রানে ম্যাচ জিতে চতুর্থবারের মতো আইপিএলের শিরোপা জয় করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।  

হায়দরাবাদ স্টেডিয়ামে বিগ ফাইনলে আগে ব্যাটিং করে ৮ উইকেটে ১৪৯ রান তোলে মুম্বাই। জবাবে চেন্নাই ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৮ রানের বেশি করতে পারেননি।

মালিঙ্গা শেষের নায়ক হলেও ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন জসপ্রিত বুমরাহ। ৪ ওভারে ১৪ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন ভারতীয় পেসার। মালিঙ্গা ৪ ওভারে ১ উইকেট নিতে খরচ করেন ৪৯ রান।

লক্ষ্য তাড়ায় ধোনির দলের শুরুটা ভালোই হয়েছিল। ফাফ ডু প্লেসিস ১৩ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় দ্রুত ২৬ রান তোলেন। উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৩৩ রান। এ জুটি ভাঙেন ক্রুনাল পান্ডিয়া। ডু প্লেসিসকে স্ট্যাম্পড করান বাঁহাতি স্পিনার। অপরপ্রান্তে থাকা শেন ওয়াটসন শেষ আসরের ফাইনালের মতো এবারও দ্যুতি ছড়িয়ে যান। শেষ ওভারে রান আউট হওয়ার আগে ৫৯ বলে ৮ চার ও ৪ ছক্কায় করেন ৮০ রান। চেন্নাইয়ের ব্যাটিংয়ে ধস নামে মধ্যভাগে। পরীক্ষিত পারফর্মাররা কেউই ভালো করতে পারেননি। রায়না (৮), রাইডু (১), ধোনি (২), ব্রাভো (১৫) দ্রুত সাজঘরে ফেরেন।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে রোহিত শর্মা ও কুইন্টন ডি কক মুম্বাইকে ভালো শুরু এনে দেন। ৪৫ রান যোগ করেন তারা। এ জুটি ভাঙতেই ব্যাকফুটে যাওয়া শুরু করে মুম্বাই। ধীরে ধীরে কমতে থাকে তাদের রান রেট। শেষ দিকে লড়াই করেন কাইরন পোলার্ড। তার ২৫ বলে ৩ চার ও ৩ ছক্কায় সাজানো ৪১ রানের ইনিংসে লড়াকু সংগ্রহ পায় মুম্বাই। দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৯ রান করেন ডি কক। ইশান কিশানের ব্যাট থেকে আসে ২৩ রান।

চেন্নাইয়ের হয়ে বল হাতে ২৬ রানে ৩ উইকেট নেন দিপক চাহার। ২টি করে উইকেট নেন শার্দুল ঠাকুর ও ইমরান তাহির।

শিরোপা জেতায় মুম্বাইয়ের ঘরে গেল ২০ কোটি রূপি। চেন্নাই রানার্সআপ হয়ে পেয়েছে সাড়ে ১২ কোটি রূপি।

টুর্নামেন্টের মোস্ট ভেলুয়েবল খেলোয়াড় আন্দ্রে রাসেল।

সর্বোচ্চ রানের জন্য ডেভিড ওয়ার্নার (৬৯২) ও সর্বোচ্চ উইকেটের জন্য ইমরান তাহির (২৬) পেয়েছেন পুরস্কার।

সেরা ক্যাচের পুরস্কার পেয়েছেন কাইরন পোলার্ড।

সেরা উদীয়মান ক্রিকেটারের পুরস্কার পেয়েছেন সুবমান গিল।



আমার বার্তা/১৩ মে ২০১৯/জহির

 


আরো পড়ুন