শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
এ জয়ে বাকিরা সতর্ক হয়ে খেলবে আমাদের সঙ্গে : সাকিব
স্পোর্টস ডেস্ক :
০৩ জুন, ২০১৯ ১১:২০:৫৪
প্রিন্টঅ-অ+


‘আমরা সব সময়ই বলার চেষ্টা করি যে আমরা বিপদজ্জনক দল। কিন্তু বাইরের কেউ তো পাত্তা নেয় না।’ - বলছিলেন সাকিব আল হাসান। হাসিখুশি মনেই কথাটা বলেছিলেন। মনে কোনো সংশয় না রেখে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে জয়ের পর মিক্সড জোনে সাকিবের উপস্থিতি বাড়তি উন্মাদনার সৃষ্টি করেছিল। সাকিবও ছিলেন হাসিখুশি। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে গতকাল প্রথমবারের মতো পেয়েছেন বিশ্বকাপের ম্যাচ সেরার পুরস্কার। ম্যাচশেষে তাই তার উচ্ছ্বাস ছিল অন্য সবার থেকে বেশি।

শুধু দ্বিপাক্ষিক সিরিজ নয়, বৈশ্বিক ক্রিকেটে বাংলাদেশ বলে কয়ে যে কোনো দলকে হারাতে পারে তার প্রমাণ মিলেছে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে। বাংলাদেশকে হাল্কাভাবে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। মাশরাফি যেমন আগের দিন বলেছিলেন,‘যদি দক্ষিণ আফ্রিকা ভেবে থাকে ওদের ২ পয়েন্ট নিশ্চিত তাহলে ভুল করছে। ম্যাচ থেকে অনেক আগেই তারা ছিটকে গেছে।’

সাকিবও আজ সেই কথাই বললেন,‘এসব জায়গায় আমাদের প্রমাণের সুযোগ আছে। বড় দলগুলো যদি ভেবে থাকে সহজেই জিতে যাবে তাহলে তাদের এই সুযোগগুলোই আমাদেরকে কাজে লাগাতে হবে।’

সেই সুযোগটি টাইগাররা কাজে লাগিয়েছে ভালোভাবেই। রোববার দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছে ২১ রানে। ম্যাচ নিয়ে সাকিবের ভাষ্য,‘খুবই ভালো লাগছে। আমাদের ভেতরে বিশ্বাসটা ছিল যে আমরা পারব। বিশ্বাসটা আমাদের কাজে দেখানোর দরকার ছিল। যেটার জন্য সবাই বেশ উৎগ্রীব ছিল। আমরা ভাগ্যবান। পাশাপাশি সবাই যেহেতু আত্মবিশ্বাসী ছিল, আমাদের পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়ন করতে অনেক সাহায্য করেছে। শুরুটা ভালো হলো। আমি মনে করি সবাই খুব ভালো অবস্থায় আছে মানসিকভাবে। এভাবে যদি আমরা যেতে পারি তাহলে আমরা অনেক দূরে যেতে পারব।’

সাকিবের মতে, অন্যান্য দলগুলো এখন বাংলাদেশকে নিয়ে সতর্ক থাকবে। সামনে বাংলাদেশের কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে বলেও ধারণা তার। ‘আরও আটটা ম্যাচ আছে আমাদের। অনেক কঠিন পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে হবে। এই ফলের পর সবাই আরও সতর্ক হয়ে খেলবে আমাদের সঙ্গে। আমাদের প্রস্তুতি সেভাবেই নিতে হবে। পরিকল্পনাগুলো সেভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। এটা একদিক থেকে ভালো। নার্ভাস, টেনশন কাজ করতে পারে। ফোকাস থাকবে সবার। অনেক সময় দেখা যায় ফোকাস কম থাকে, আমরা সেটা কাজে লাগিয়ে জিতে গেলাম। এখন সবার ফোকাস থাকবে। ওখানে আমাদেরকে ভালো করতে হবে।’

ওভালেই বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। বুধবারই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ড সাকিবের প্রিয় পক্ষের একটি। ২১ ম্যাচে ৩০.২৬ গড়ে ৫৭৫ রান ও ৩৫ উইকেট নিয়েছেন কিউইদের বিপক্ষে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ১১৪ রানের ইনিংস ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। তার মতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি মোটেও সহজ হবে না। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের ধারাবাহিকতা ধরে রাখলে কিউইদের বিপক্ষে জয় পাওয়া সম্ভব।

‘পছন্দের দল বলতে কিছু নেই। নিউজিল্যান্ড খুব কঠিন প্রতিপক্ষ। আইসিসি ইভেন্টগুলোতে ওরা সব সময়ই খুব ভালো করে। ওদের সাথে ভালো করতে হলে আমাদেরকে খুব ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের আত্মবিশ্বাস আমাদের কাজে দেবে। ওরা কিন্তু প্রথম ম্যাচে ১০ উইকেটে জিতেছে ভালো একটি দলের সঙ্গে। স্বাভাবিকভাবেই আমাদেরকে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। যদি এভাবে খেলতে পারি ফলও এমন হতে পারে।’



আমার বার্তা/০৩ জুন ২০১৯/জহির



 


আরো পড়ুন